বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চলতি মাসের প্রথম ২১ দিনে ৩ হাজার ৯৯৮টি নমুনা পরীক্ষায় ৪৩৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তের হার ১০ দশমিক শূন্য ৯। ২১ দিনে জেলায় করোনায় মারা গেছেন ১০ জন। উপসর্গে মারা যান ২৯ জন।

জেলায় আগস্ট মাসে ১১ হাজার ৫৯৯টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয় ২ হাজার ৪০৯ জনের। আক্রান্তের হার ২০ দশমিক ৭৬। আগস্টে মারা গেছেন ৩৫ জন। করোনার উপসর্গে মারা গেছেন ১০৮ জন।

জুলাই মাসে ৮ হাজার ৯৯২টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছিল ৩ হাজার ২৪৭ জনের। আক্রান্তের হার ৩৬ দশমিক ১০। মারা যান ২৭ জন।

ফেনী জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আবুল খায়ের মিয়াজী বলেন, শেষ ২৪ ঘণ্টায় ফেনী জেনারেল হাসপাতালের কোভিড ডেডিকেটেড ইউনিটে তিনজন মারা গেছেন। তবে গত কয়েক দিনে করোনা ও এর উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রোগীর কিছুটা কম।

আবুল খায়ের জানান, সেপ্টেম্বরের প্রথম ২১ দিনে হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ১০ জন করোনায় ও ২৯ জন করোনার উপসর্গে মারা গেছেন।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, আজ মঙ্গলবার নোয়াখালীর আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজ আরটি–পিসিআর ল্যাব, জিন এক্সপার্ট ও র‍্যাপিড টেস্টে ২৪৯টি নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে ৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়। আক্রান্তের হার ২ দশমিক ৪০। নতুন আক্রান্তের মধ্যে ফেনী সদর উপজেলার তিনজন, দাগনভূঞার দুজন ও ছাগলনাইয়ার একজন আছেন।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, আজ পর্যন্ত ফেনী জেলায় ১০ হাজার ৫৯৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৫০ হাজার ৩৩২টি। তাঁদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ১০৫ জন। জেলায় করোনায় মারা গেছেন ১৪৭ জন।
বর্তমানে জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ৩০ জন করোনা রোগী ভর্তি আছেন। তাঁদের মধ্যে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ১৪ জন, দাগনভূঞা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১১ জন, ছাগলনাইয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩ জন ও পরশুরাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১ জন ভর্তি আছেন। ফেনীর সিভিল সার্জন রফিক উস সালেহীন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এ ছাড়া ১ হাজার ২৮৬ জন করোনা রোগী স্বাস্থ্য বিভাগের অধীনে বাড়িতে আইসোলেশনে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন