default-image

ফেনীতে নতুন করে ৩১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের মোট সংখ্যা দাঁড়াল ৮৭৬। এর মধ্যে মোট সুস্থ হয়েছেন ৫১৮ জন। মারা গেছেন ১৭ জন। ফেনীর ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন এস এম মাসুদ রানা আজ শুক্রবার দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এদিকে করোনায় আক্রান্ত ফেনীর সিভিল সার্জন মো. সাজ্জাদ হোসেনসহ ১৮ জনকে ঢাকাসহ অন্যত্র স্থানান্তর করা হয়েছে। বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত আটজন রোগী ফেনী জেনারেল হাসপাতাল ও দাগনভূঞা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছেন। বাকিরা স্বাস্থ্য বিভাগের অধীন হোম আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

নতুন আক্রান্ত ৯ জনের মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় দুজন ও সোনাগাজী উপজেলায় সাতজন রয়েছেন। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে, গত ১৬ এপ্রিল জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের পশ্চিম মধুগ্রামে এক যুবকের করোনা শনাক্ত হওয়ার মাধ্যমে ফেনী জেলায় প্রথম করোনা সংক্রমণের তথ্য জানা যায়। ওই যুবক ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকায় একটি মুঠোফোনের সেন্টারে চাকরি করতেন।

গত আড়াই মাসে জেলায় ৫ হাজার ৮৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রামের ফৌজদারহাট বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি), চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় এবং নোয়াখালী আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়। আজ শুক্রবার পর্যন্ত ৪ হাজার ৮৪৭ জনের নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ৮৭‍৬ জন করোনা ‘পজিটিভ’ শনাক্ত হয়েছেন।

জেলায় মোট আক্রান্ত ৮৭৬ জনের মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় রয়েছেন ৩৪৬ জন, দাগনভূঞা উপজেলায় ১৮৩ জন, ছাগলনাইয়া উপজেলায় ১০৯ জন, সোনাগাজীতে ১৪৮ জন করে, পরশুরামে ৩৬ জন ও ফুলগাজীতে ৪২ জন রয়েছেন। এ ছাড়া পাশের চট্টগ্রাম, মিরসরাই, চৌদ্দগ্রাম ও সেনবাগের ১২ জন রোগী জেলায় চিকিৎসাধীন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0