default-image

ফেনীতে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের গভীর নলকূপ স্থাপনে নিম্নমানের কাজের প্রতিবাদ করায় ঠিকাদার ও তাঁর সহযোগীরা মিলে একজন প্রকৌশলীকে মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ফেনী সদর উপজেলা ভূমি কার্যালয় চত্বরে এই মারধরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় চারজনের বিরুদ্ধে ফেনী সদর মডেল থানায় মামলা হয়েছে। রাতেই ঠিকাদারসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, ফেনী সদর উপজেলার ভূমি কার্যালয় চত্বরে গভীর নলকূপ স্থাপনের কাজ পান ঠিকাদার হুয়ায়ুন কবীর। কাজ নিম্নমানের হওয়ার খবর পেয়ে গতকাল রাতে সরেজমিনে তদন্তে যান ফেনী সদর উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপসহকারী প্রকৌশলী মো. সমেশ আলী। ঘটনাস্থলে গিয়ে ঠিকাদারকে সঠিকভাবে কাজ করার কথা বললেই তিনি ক্ষিপ্ত হন। কথা–কাটাকাটির একপর্যায়ে ঠিকাদার অকথ্য ভাষায় প্রকৌশলীকে গালমন্দ করেন।

বিজ্ঞাপন

একপর্যায়ে ঠিকাদার ও তাঁর লোকজন প্রকৌশলীকে মারধর করেন। এ সময় চিৎকার শুনে ভূমি কার্যালয়ের লোকজন ছুটে গিয়ে প্রকৌশলীকে উদ্ধার এবং ঠিকাদার হুয়ায়ুন কবির, তাঁর সহযোগী জিলানী ও দেলোয়ারকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন। আইয়ুব নামের একজন পালিয়ে যান। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে আহত সমেশ আলীকে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

ফেনী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন বলেন, প্রকৌশলকে মারধর করার ঘটনায় ৪ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে। আজ শুক্রবার তাঁদের আদালতে পাঠানো হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন