default-image

ফেনীতে মধ্যরাতে আগুনে পুড়ে দগ্ধ মা মেহেরুন নেছার (৪০) পর মেয়ে হাফসা ইসলামও (১৫) মারা গেল। আজ বৃহস্পতিবার ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। গতকাল বুধবার বিকেলে একই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তার মা।

ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মায়ের লাশ চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার করেরহাটের ছত্তরুয়া গ্রামে গতকাল রাতেই দাফন করা হয়েছে।

গত শুক্রবার মধ্যরাতে ফেনী শহরের শহীদ শহীদুল্লা কায়সার সড়কের একটি ভবনের পঞ্চম তলায় আগুনে দগ্ধ হন মা-মেয়ে। তাঁদের ঢাকায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মেহেরুন নেছা তাঁর দুই মেয়ে হাফসা ইসলাম (১৫) ও ফারাহ ইসলামকে (১৮) নিয়ে ওই বাসায় থাকতেন। তাঁর স্বামী প্রবাসী।

এ ঘটনায় জেলা পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বোম নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট ও পুলিশের অ্যান্টিটেররিজম ইউনিট ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। তাদের বরাতে ফেনীর পুলিশ সুপার খোন্দকার নুরুন্নবী বলেন, ওই বাসার রান্নাঘরের চুলা ভালোভাবে বন্ধ করা হয়নি। সেখান থেকে ক্রমাগত গ্যাস বের হয়। ঘরের দরজা–জানালা বন্ধ থাকায় গ্যাস বাইরে যেতে না পেরে কক্ষেই জমা হয়। এ সময় মশা মারার ইলেকট্রিক ব্যাট ব্যবহার করার সঙ্গে সঙ্গে স্ফুলিঙ্গ থেকে আগুন ধরে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন