default-image

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে কোনো রকম আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই বরিশাল সিটি করপোরেশনের (বিসিসি) ২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। প্রস্তাবিত বাজেটে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ৪২৭ কোটি ৬২ লাখ ৬৪ হাজার ৩৪৫ টাকা। সিটি করপোরেশনের নিজস্ব অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে গত শুক্রবার এই বাজেট ঘোষণা করা হয়।

বিসিসি সূত্র জানায়, ২০১৯-২০ অর্থবছরে বরিশাল সিটি করপোরেশনে ৫৪৮ কোটি ১০ লাখ ৬৭ হাজার ৪৩৭ টাকার প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণা করেছিলেন মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ। এবার গত বছরের বাজেটের চেয়ে যা ১২০ কোটি ৪৮ লাখ ৩ হাজার ৯২ টাকা কম।

প্রস্তাবিত বাজেটের আয়ের বেশির ভাগ উৎসই দেখানো হয়েছে সরকারি অনুদান এবং সরকারি ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থার সাহায্যনির্ভর খাত থেকে।

এটি বরিশাল সিটি করপোরেশনের ১৮তম বাজেট এবং মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহর মেয়াদের দ্বিতীয় বাজেট।

ঘোষিত প্রস্তাবিত এই বাজেটের প্রায় ৮০ শতাংশ অর্থাৎ ৩৪৯ কোটি ৮৮ লাখ ৯১ হাজার ২৩৪ টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে উন্নয়ন খাতে।

বাজেটে ব্যয়ের অর্থ সংস্থানের জন্য আয়ের খাত দেখানো হয়েছে রাজস্ব খাত থেকে ১২০ কোটি ৯২ লাখ ১৭ হাজার ৯৫০ টাকা, সরকারি অনুদান থেকে (থোক বরাদ্দ) ১২ কোটি টাকা, সরকারি বিশেষ অনুদান থেকে ১০ কোটি টাকা এবং সরকারি-বৈদেশিক সাহায্যপুষ্ট প্রকল্প থেকে ২৫৮ কোটি ৪০ লাখ টাকা।

প্রস্তাবিত বাজেটে ব্যয়ের খাত হিসেবে রাজস্ব থেকে ৭৩ কোটি ৬১ লাখ ৬৯ হাজার ৭৪২ টাকা, উন্নয়ন (নিজস্ব উৎস) থেকে ৫৯ কোটি ৫ লাখ টাকা, উন্নয়ন (সরকারি অনুদান) থেকে ২২ কোটি টাকা, উন্নয়ন (সরকারি- বৈদেশিক প্রকল্প) থেকে ২৬৮ কোটি ৮৩ লাখ ৯১ হাজার ২৩৪ টাকা দেখানো হয়েছে। ব্যয় শেষে সমাপনী স্থিতি ধরা হয়েছে, ৪ কোটি ১২ লাখ ৩ হাজার ৩৬৯ টাকা।

গত অর্থবছর থেকে চলতি অর্থবছরের বাজেটে নগরের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমে ১৯৬ শতাংশ, মশক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে ৪৮৩ শতাংশ, কল্যাণমূলক ব্যয়ের (সাহায্য সহযোগিতা) ৯১ শতাংশ, প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরিচর্যায় ৩১১ শতাংশ, আইসিটি খাতে ২১৬ শতাংশ, পানি সরবরাহ ও বিদ্যুৎ বিভাগে ২১৯ শতাংশ বরাদ্দ বৃদ্ধি করা হয়েছে।

প্রস্তাবিত বাজেটে গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি উন্নয়ন খাতের মধ্যে রয়েছে সড়ক, নালা ও অন্যান্য ভৌত অবকাঠামো নির্মাণ ও উন্নয়ন এবং নগরের বিভিন্ন স্থানে সৌন্দর্যবর্ধন কাজের জন্য ১০৭ কোটি ৫ লাখ টাকা, সড়ক ও নালা এবং অন্যান্য অবকাঠামো পরিচালন ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজে ২০ কোটি ৫০ লাখ টাকা, সেতু-কালভার্টের উন্নয়ন খাতে ৫ কোটি টাকা, শহর রক্ষা বাঁধের জন্য ১০ কোটি টাকা, খাল সংরক্ষণ খাতে ৫০ কোটি টাকা এবং পরিবেশ উন্নয়ন ও অন্যান্য খাতে ১ কোটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয় ধরা হয়েছে।

বরিশাল সিটি করপোরেশনের ফেসবুক পেজের মাধ্যমে ঘোষিত বাজেটের বক্তব্যে মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, বরিশাল সিটি করপোরেশনকে নিজের পায়ে দাঁড়াতে হলে রাজস্ব আয় বৃদ্ধির বিকল্প নেই। স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত করার ফলে সিটি করপোরেশনের আয় বৃদ্ধি পাচ্ছে। করোনা পরিস্থিতির ফলে বিগত ২০১৯-২০ অর্থবছরের রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা সম্পূর্ণভাবে অর্জন করা সম্ভব না হলেও এ অর্থবছরে তা পূরণ করা সম্ভব হবে। বাজেট বাস্তবায়নে তিনি নগরবাসীর সহযোগিতা ও সমর্থন কামনা করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0