default-image

গাজীপুরের শ্রীপুরে খালের ওপর গ্রামবাসীর চাঁদায় তৈরি ১০ বছরের পুরোনো ভাঙা কাঠের সেতুর পরিবর্তে তৈরি হলো লোহার সেতু। গতকাল সোমবার থেকে খালটির উভয় পাশের দুই গ্রামের বাসিন্দাদের মধ্যে আবারও স্বাভাবিক চলাচল শুরু হয়েছে।

মাসখানেক ধরে শ্রীপুর পৌর এলাকার ছৌককার খালের ওপর কাঠের সেতুটি বিভিন্ন জায়গায় ভেঙে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। সম্প্রতি কাঠের ভাঙা সেতুর ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করে নিজেদের দুর্দশার কথা জানান গ্রামের কয়েকজন বাসিন্দা। সেই ছবি দেখে সেতু এলাকায় গিয়ে উপস্থিত হন তরুণ ছাত্রনেতা ও ব্যবসায়ী জাহিদুল আলম। তিনি গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক।

গ্রামের লোকজনের যাতায়াতের কথা বিবেচনা করে খুব দ্রুত সময়ের মধ্যেই তা সংস্কার করে দেওয়ার আশ্বাস দেন। গত রোববার বিকেলের মধ্যেই সেতু সংস্কার শেষ হয়। গতকাল থেকে খালের দুই পাড়ের ছাপিলাপাড়া ও বনরূপা গ্রামের শত শত মানুষের স্বাভাবিক চলাচল নতুন সেতু দিয়ে শুরু হয়।

ওই দুই গ্রামের কয়েকজন বাসিন্দা জানান, মানুষের দুর্দশায় তারুণ্যের এমন স্বতঃস্ফূর্ত এগিয়ে আসায় তাঁরা তরুণদের নিয়ে আশাবাদী।

ছাত্রনেতা জাহিদুল আলম বলেন, ‘একটি কাঠের সেতু ভেঙে যাওয়ায় এত এত মানুষের দুর্ভোগ, এটা এই সময়ে ভাবা যায় না। আমি মানুষের প্রয়োজনে মানুষ হিসেবে এগিয়ে এসেছি। সবাইকে নিয়ে ভালো থাকতে চাই।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0