বিজ্ঞাপন

বীর মুক্তিযোদ্ধার পরিবার সূত্রে জানা গেছে, নূর হোসেন দুই বছর ধরে ফুসফুসে ক্যানসারে আক্রান্ত। চিকিৎসকের পরামর্শে তাঁকে চার মাস অন্তর দুই ব্যাগ করে রক্ত দিতে হয়। নানাভাবে চেষ্টা করেও এবার রক্ত জোগাড় করতে পারছিল না তাঁর পরিবার। এ অবস্থায় শুক্রবার বেলা দুইটার দিকে তাঁর ছেলে সাজ্জাদ হোসেন ফেসবুকে বাবার জন্য রক্ত চেয়ে একটি লেখা প্রকাশ করেন।

বিষয়টি নজরে আসে ধরমপাশার ইউএনও মুনতাসির হাসানের। তিনি নুর হোসেনের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। কথামতো শনিবার বেলা দুইটার দিকে উপজেলা শহরের একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে গিয়ে এক ব্যাগ রক্ত দেন ইউএনও। সেই রক্ত নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালের মুক্তিযোদ্ধা কেবিনে। সেখানে নুর হোসনকে রক্ত দেওয়া হয়েছে।

সাজ্জাদ হোসেন বলেন, তাঁরা ইউএনও মহোদয়ের প্রতি কৃতজ্ঞ। বাবার জন্য আরও এক ব্যাগ রক্ত লাগবে। স্থানীয় এক শিক্ষার্থী রক্ত দেবেন বলে তাঁকে জানিয়েছেন।

ইউএনও মুনতাসির হাসান মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, মানবিকতার তাগিদ থেকে তিনি রক্ত দিয়েছেন। তিন মাস পরপর প্রত্যেকটি সুস্থ মানুষই রক্ত দিতে পারেন। আর রক্ত দিলে অনেকের জীবন বাঁচে। সবাইকে রক্তদানে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে ইউএনও বলেন, তিনি এ পর্যন্ত পাঁচবার রক্ত দিয়েছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন