বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অমল মোহন গোস্বামী বলেন, দুর্বৃত্তরা মন্দিরের দুটি জানালার গ্রিল কেটে মন্দিরের ভেতরে ঢুকেছিল। চুরি হওয়া তিনটি স্বর্ণের চোখের আনুমানিক মূল্য ছয় হাজার টাকা। আর দানবাক্স ভেঙে অন্তত দুই হাজার টাকা চুরি হয়েছে।

মন্দির পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাধন চক্রবর্তী বলেন, চার বছর আগেও এই মন্দির থেকে গভীর রাতে দানবাক্স ভেঙে নগদ টাকা লুট হয়েছিল। ওই সময় এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ করা হয়েছিল। মন্দিরের সংরক্ষিত সিসি ক্যামেরার ফুটেজও থানা–পুলিশকে সরবরাহ করা হয়েছিল। তবে এত দিনেও পুলিশ দুর্বৃত্তদের শনাক্ত বা আটক করতে পারেনি। গতকাল রাতের ঘটনার দৃশ্যও মন্দিরের সিসি ক্যামেরা ফুটেজে সংরক্ষণ রয়েছে। থানায় বিষয়টি অবগত করা হয়েছে।

default-image

মন্দির পরিচালনা কমিটির কার্যকরী সভাপতি প্রদীপ কুণ্ডু বলেন, সিসি ক্যামেরার ফুটেজে রাত একটার দিকে জানালা কেটে এক দুর্বৃত্তকে মন্দিরের ভেতরে ঢুকতে দেখা গেছে। এরপর অন্তত ২০ মিনিট ধরে ওই দুর্বৃত্ত মন্দিরের ভেতরে ছিলেন।

শেরপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম বলেন, মন্দির কমিটির লোকজনের পক্ষ থেকে মৌখিক অভিযোগ পাওয়া গেছে। কে বা কারা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত তা চিহ্নিত করতে পুলিশ ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে। জড়িত ব্যক্তিদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন