default-image

বগুড়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজন বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ চারজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে আজ শনিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত এই চারজনের মৃত্যু হয়। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা এখন ২৯৬।

সর্বশেষ শনিবার সকাল ৯টার দিকে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইব্রাহিম হোসেন (৬৫)। তিনি শহরের শিববাটি এলাকার বাসিন্দা।

হাসপাতাল ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ইব্রাহিম হোসেনের শরীরে গত মাসের প্রথম দিকে জ্বর, শ্বাসকষ্টসহ করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের আরটিপিসিআর ল্যাবরেটরিতে নমুনা পরীক্ষায় তিনি কোভিড-১৯ পজিটিভ শনাক্ত হন। শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে ১৭ এপ্রিল তাঁকে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি ঘটলে তাঁকে হাসপাতালের আইসিইউতে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ৯টার তাঁর মৃত্যু হয়। আসরের নামাজের পর কালিতলাহাট মদিনা মসজিদ চত্বরে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় ‘গার্ড অব অনার’ প্রদান করা হয়। জানাজা শেষে তাঁকে স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হয়।

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় জেলার তিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও তিনজন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। বগুড়ার ডেপুটি সিভিল সার্জন মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, শুক্রবার রাত আটটার দিকে বগুড়ার সরকারি মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন আবদুল মোমিন (৪০)। তাঁর বাড়ি জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলায়। শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনায় সংক্রমিত হয়ে মৃত্যু হয়েছে মিলা বেগম (৭৪) নামে একজন নারীর। তিনি বগুড়া শহরের নাটাইপাড়া এলাকার বাসিন্দা। অন্যদিকে বেসরকারি টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে শহরের বৃন্দাবনপাড়া এলাকার বাসিন্দা আফজালুল ইসলাম (৭০) নামে এক ব্যক্তির।

ডেপুটি সিভিল সার্জন মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এ নিয়ে জেলায় করোনায় সংক্রমিত হয়ে এ পর্যন্ত ২৯৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৮ নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে ১৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনা শনাক্ত মানুষের সংখ্যা হলো ১১ হাজার ৮৫৩।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন