বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

হাসান সরকারের ছেলে মৃদুল সরকার অভিযোগ করেন, গত বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে সহযোগীদের সঙ্গে মিলে রূপম তাঁর বাবার ওপর অতর্কিতে হামলা করেন। বাবার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে গেলে অভিযুক্ত ব্যক্তিরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। হাসান সরকারকে উদ্ধার করে প্রথমে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে গতকাল বিকেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। আজ সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

বগুড়া উপশহর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক আবদুর রশিদ সরকার প্রথম আলোকে বলেন, এ ঘটনায় হাসান সরকারের ছেলে বাদী হয়ে গতকাল বগুড়া সদর থানায় রূপমসহ কয়েকজনকে আসামি করে মারামারির মামলা করেছেন। এখন এটি হত্যা মামলায় রূপান্তরের জন্য আদালতে আবেদন করা হয়েছে। রূপম ও তাঁর সহযোগীরা আত্মগোপনে আছেন। তাঁদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন