সুনামগঞ্জে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান। আজ মঙ্গলবার বিকেলে শহরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা জগৎজ্যোতি পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে
সুনামগঞ্জে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান। আজ মঙ্গলবার বিকেলে শহরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা জগৎজ্যোতি পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনেপ্রথম আলো

কয়েক বছর ধরে সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ তিন নেতার মধ্যে সাংগঠনিক ও অন্য নানা বিষয় নিয়ে দূরত্ব দেখা দিয়েছিল। কোনো কোনো সময় দলীয় নানা কর্মসূচিও আলাদাভাবে পালন করেছেন তাঁরা। সভা-সমাবেশে একে অপরের সমালোচনা করেছেন। কিন্তু জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালনে আবার তাঁরা ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন। বসেছেন এক টেবিলে।

সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের এই তিন নেতা হলেন সংগঠনের জেলা কমিটির সভাপতি ও সাবেক সাংসদ মো. মতিউর রহমান, জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ও সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নূরুল হুদা মুকুট এবং সাধারণ সম্পাদক এম এনামুল কবির ইমন।

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ১৭ মার্চ উপলক্ষে নেওয়া জেলা আওয়ামী লীগের কর্মসূচি জানাতে আজ মঙ্গলবার বিকেলে একত্রে বসে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তাঁরা। পৌর শহরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা জগৎজ্যোতি পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে এই সংবাদ সম্মেলন হয়।

বিরোধ মিটিয়ে এক হওয়া সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের এই তিন নেতা হলেন জেলা কমিটির সভাপতি ও সাবেক সাংসদ মো. মতিউর রহমান, জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ও সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নূরুল হুদা মুকুট এবং সাধারণ সম্পাদক এম এনামুল কবির ইমন।

সংবাদ সম্মেলনে দলীয় কর্মসূচি তুলে ধরেন সাধারণ সম্পাদক এম এনামুল কবির। তিনি জানান, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ১৭ মার্চ বুধবার আওয়ামী লীগের জেলাব্যাপী কর্মসূচি শুরু হবে সকাল থেকে। প্রতিটি উপজেলায় সংগঠনের কর্মসূচি রয়েছে। বেলা সাড়ে তিনটা থেকে অনুষ্ঠান হবে জেলা শহরের সরকারি জুবিলি উচ্চবিদ্যালয় মাঠে। মাঠে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হবে। অনুষ্ঠানে আলোচনা পর্ব ছাড়াও মহান মুক্তিযুদ্ধে সুনামগঞ্জে যেসব আওয়ামী লীগ নেতারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন এবং দলের জন্য জীবনভর কাজ করেছেন তাঁদের সম্মাননা প্রদান করা হবে। সন্ধ্যায় রয়েছে কেক কাটা ও আতশবাজি। পরে দেশের জনপ্রিয় শিল্পীদের পরিবেশনা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে।

বিজ্ঞাপন

এনামুল কবির জানান, এর বাইরে শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা রয়েছে। শহরের বিভিন্ন স্থানে স্থাপন করা হয়েছে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ও বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবনভিত্তিক স্থিরচিত্র।

আমাদের মধ্যে দূরত্ব ছিল। কিন্তু জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী আমাদের আবার এক করেছে। সব ভেদাভেদ ভুলে আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়েছি। সবাই মিলেই আমরা আগামীতে দেশের জন্য, দলের জন্য কাজ করব।
নূরুল হুদা, জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ

সংবাদ সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি নূরুল হুদা বলেন, ‘আমাদের মধ্যে দূরত্ব ছিল। কিন্তু জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী আমাদের আবার এক করেছে। সব ভেদাভেদ ভুলে আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়েছি। সবাই মিলেই আমরা আগামীতে দেশের জন্য, দলের জন্য কাজ করব।’

জেলা কমিটির সভাপতি মতিউর রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না। তিনি মহান মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক। বঙ্গবন্ধু সবার, দেশের সব মানুষের। তাই তাঁর জন্মশতবার্ষিকীর উৎসব সর্বজনীন। তিনি আরও বলেন, ‘সুনামগঞ্জ আওয়ামী লীগ সব সময়ই ঐক্যবদ্ধ ছিল। আমরা সবাইকে নিয়েই জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী পালন করছি।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রেজাউল করিম শামীম, মো. শফিকুল আলম ও খায়রুল কবির রুমেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নান্টু রায় ও হায়দার চৌধুরী লিটন, সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুর রহমান ও জুনেদ আহমদ, কোষাধ্যক্ষ ইশতিয়াক শামীম, বিভিন্ন পদে থাকা সুবীর তালুকদার বাপ্টু, আবুল কালাম, আবদুল করিম, শাহ আবু নাসের, নিজাম উদ্দিন, শামীম আখঞ্জি, অমল কান্তি কর, আবদুল আজাদ রুমান, নূরে আলম সিদ্দিকী, সীতেশ তালুকদার মঞ্জু, আজাদুল ইসলাম রতন, আতিকুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন