বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত রোববার উপজেলার ১০ ইউপিতে ভোট গ্রহণ হয়। পরদিন সোমবার সকালে দামোদরপুর ইউপির মোস্তফাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের পেছন থেকে সিলমারা চারটি ব্যালট পেপার কুড়িয়ে পায় এক শিশু। খবর পেয়ে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সাইদুল ইসলাম পুলিশের পিকআপ ভ্যান নিয়ে ওই শিশুর বাড়িতে যান।

এ সময় লোকজন জড়ো হলে সাইদুল উপস্থিত সাধারণ মানুষের সঙ্গে অসদাচরণ করেন বলে অভিযোগ ওঠে। একপর্যায়ে স্থানীয় লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে পুলিশের গাড়ি আটকে দিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। ঘটনাটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে ওই ইউপির আওয়ামী লীগের পরাজিত প্রার্থী আজিজুল হকের সমর্থকেরাও বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে যোগ দেন। এ সময় বিক্ষোভকারীরা ওই এএসআইয়ের শাস্তি এবং ব্যালট পেপার বাইরে কুড়িয়ে পাওয়ার কারণ উদ্‌ঘাটনের দাবি জানান।

পরে বদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুর রহমান ঘটনাস্থলে আসেন। এরপর তিনি বিক্ষোভকারীদের দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। বিকেল পাঁচটার দিকে ওই এএসআইকে মুক্ত করে থানায় নিয়ে যান ওসি।

ওসি হাবিবুর রহমান বলেন, কুড়িয়ে পাওয়া চারটি ব্যালট পেপারগুলো সদ্য সমাপ্ত ইউপি নির্বাচনের। এর মধ্যে একটিতে চেয়ারম্যান প্রার্থীর মোটরসাইকেল প্রতীকে এবং অন্য তিনটি সদস্যপ্রার্থীর বই প্রতীকে সিল মারা ছিল। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এদিকে জনতার সঙ্গে অসদাচরণ করার অভিযোগে অভিযুক্ত ওই এএসআইকে থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন