বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্র জানায়, করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সাত দিনের কঠোর লকডাউনের প্রথম দিনে আজ শপিং মলের কলাপসিবল গেট বন্ধ ছিল। তবে ভেতরে একটি দোকানের শাটার আংশিক খোলা ও আলো জ্বলতে দেখা যায়। পরে মার্কেটে প্রবেশের ছোট্ট একটি দরজা দিয়ে ভেতরে ঢুকে দেখা যায়, ওই কাপড়ের দোকানটিতে বেচাকেনা চলছে। লকডাউন অমান্য করে দোকান খোলা রাখার দায়ে দোকানি আবদুল হান্নানকে ১০ হাজার এবং নুরুল ইসলাম, সাজেদা বেগম ও নাছিমা আক্তার নামের তিন ক্রেতাকে ৫ হাজার টাকা করে মোট ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মার্কেটে প্রবেশের ছোট্ট একটি দরজা দিয়ে ভেতরে ঢুকে দেখা যায়, ওই কাপড়ের দোকানটিতে বেচাকেনা চলছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে সাতকানিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আল বশিরুল ইসলাম, সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন, সেনাবাহিনী ও পুলিশের একটি দল উপস্থিত ছিল।

ইউএনও মো. নজরুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে দোকান খোলা রাখা, মোটরসাইকেল চালানো ও অযথা বাইরে ঘোরাঘুরির করার দায়ে ৬৯ হাজার টাকা জরিমানাসহ ২টি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন