এলাকার বাসিন্দা ও কুলাউড়া ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা গেছে, মামার বাড়িতে থেকে পড়ালেখা করতেন অনুপম। কিন্তু তিনি সাঁতার জানতেন না। সম্প্রতি অতিবৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে ধামাই চা–বাগানের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়। এই সুযোগে আজ বিকেলে বন্ধুদের সঙ্গে বন্যার পানিতে নেমে সাঁতার শিখছিলেন অনুপম। একপর্যায়ে তিনি পানিতে ডুবে যান। তখন বন্ধুদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে গিয়ে তাঁর সন্ধানে নামেন। খবর পেয়ে কুলাউড়া ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরাও ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারকাজ চালান। কিন্তু পানি বেশি থাকায় তাঁরা ওই শিক্ষার্থীর লাশ খুঁজে পাননি। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে সিলেট থেকে আসা ডুবুরি দল চা–বাগান এলাকা থেকে অনুপমের লাশ উদ্ধার করে।

কুলাউড়া ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা সোলায়মান হোসেন রাতে প্রথম আলোকে বলেন, অনুপমের লাশ উদ্ধারের পর জুড়ী থানা–পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জুড়ী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) অনীক রঞ্জন দাস বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে এ বিষয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন