বন্য হাতিকে বিরক্ত না করার শপথ ১০০ জনের

কক্সবাজার জেলার মানচিত্র

বনাঞ্চলের যেসব জায়গায় বন্য হাতির বিচরণ, সেখানে হাতিকে বিরক্ত করা হবে না বলে শপথ নিয়েছেন ১০০ জন। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে কক্সবাজারের জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের ব্যাঙডেবা এলাকায় বনবিট কার্যালয় প্রাঙ্গণে এক সভায় এই শপথ নেন তাঁরা। হাতি ও মানুষের দ্বন্দ্ব নিরসনবিষয়ক সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।

জোয়ারিয়ানালা রেঞ্জ কর্মকর্তা সুলতান আহমদের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন কক্সবাজার উত্তর বন বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা (ডিএফও) মো. আনোয়ার হোসেন সরকার। তিনি বলেন, হাতি নিরীহ প্রাণী, এদের বিরক্ত না করাই ভালো। তারপরও হাতি যদি খেত কিংবা ফসলের ক্ষতি করে, তাহলে ক্ষতিপূরণ পাওয়ার ব্যবস্থা আছে, সরকার সেই ক্ষতিপূরণ দিচ্ছে। কেউ  গুলি করে কিংবা বৈদ্যুতিক ফাঁদে ফেলে হাতি হত্যা করলে কঠোর শাস্তির আওতায় আনা হবে।

সভায় বক্তব্য দেন জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান কামাল শামশুদ্দিন আহমেদ, এ সি এফ সন্তোষ চন্দ্র রায়, বনবিট কর্মকর্তা জাকির হোসেন, হেডম্যান নুরুল আমিন প্রমুখ। সভায় নিজেদের বক্তব্য তুলে ধরেন স্থানীয় কাঠুরিয়া ও চাষি নুরুল আমিন, সৈয়দ করিমসহ অন্যরা।

ইউপি চেয়ারম্যান কামাল শামশুদ্দিন আহমেদ বলেন, বনাঞ্চল উজাড় হওয়ায় বন্য হাতিগুলো দল বেঁধে লোকজনের খেত–খামারে হানা দিচ্ছে। আর ফসল রক্ষার জন্য মানুষ গুলি করে কিংবা বৈদ্যুতিক ফাঁদ পেতে হাতি হত্যা করছেন। অন্যদিকে হাতির আক্রমণে মানুষেরও মৃত্যু হচ্ছে। হাতি ও মানুষের দ্বন্দ্ব নিরসনে আরও জনসচেতনতা দরকার।