default-image

বরগুনার বেতাগী উপজেলার সরিষামুড়ি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইমাম হাসানকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। ধারালো অস্ত্রের কোপে হাড় কেটে ঝুলে আছে তাঁর বা পা। শুক্রবার দুপুরে ইউনিয়নের কালিকাবাড়ী এলাকায় প্রতিপক্ষের লোকজনের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ উঠেছে।

চেয়ারম্যানের স্বজনদের দাবি, কালিকাবাড়ী এলাকায় ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ইউসুফ শরীফের নেতৃত্বে ৭-৮ জনের একটি দল ধারালো অস্ত্র নিয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান ইমাম হাসানের ওপর হামলা চালিয়েছে। এতে তিনি গুরুতর আহত হয়েছেন।

বরগুনা জেলা হাসপাতাল সূত্র জানায়, হামলায় আহত চেয়ারম্যানকে মুমূর্ষু অবস্থায় বেলা তিনটার দিকে হাসপাতালে আনা হয়। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি শঙ্কামুক্ত নন। তাঁর দুই পা ও ডান হাতে কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছে। এতে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক মো. তারেক হাসান বলেন, হামলায় ইউপি চেয়ারম্যানের অবস্থা গুরুতর। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তাঁর ডান পায়ের রগ কেটে গেছে। বাঁ পায়ের হাড় কেটে ঝুলে আছে পা। জখম হয়েছে ডান হাত।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর দাবি করেন, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী ইউসুফ শরিফের নেতৃত্বে ইমাম হাসানের ওপর হামলা চালানো হয়েছে।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে ইউসুফ শরিফের মুঠোফোনে কল করা হলে তাঁর নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে বেতাগী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী শাখাওয়াত হোসেন বলেন, ইউপি চেয়ারম্যানের ওপর হামলার খবর পেয়ে তাঁরা ঘটনাস্থলে ছুটে যান। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলেছে।

মন্তব্য পড়ুন 0