বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, জেলা বিএনপির সহসভাপতি এস এম নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সকালে ওই বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ চলাকালে বিএনপির নেতা-কর্মীদের দলীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে অবরুদ্ধ করে রাখে পুলিশ। এর আগে গত শনিবার একই স্থানে গণ–অনশন করে বিএনপি। সে সময় পুলিশ সড়ক থেকে সরে যেতে বললে বিএনপির নেতা-কর্মীরা সড়ক ছেড়ে না যাওয়ায় পুলিশ লাঠিপেটা করে। এতে ২০ থেকে ২৫ জন আহত হন। ওই দিন ঘটনাস্থল থেকে ৬ জনকে আটক করে পুলিশ।

পরে পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে বিএনপির ২২ নেতা-কর্মীর নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা ৯০ থেকে ১০০ জনকে আসামি করে মামলা হয়। আটক নেতাদের ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। এ নিয়ে এই মামলায় ৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জেলা বিএনপির সহসভাপতি এস এম নজরুল ইসলাম বলেন, পুলিশি বাধার কারণে তাঁরা আজও বিক্ষোভ সমাবেশ করতে পারেননি। পুলিশ দলীয় কার্যালয়ে ঢুকে তাঁদের বেশ কয়েকজন নেতা-কর্মীকে ধরে নিয়ে গেছে। এটা দুঃখজনক।

এ বিষয়ে বরগুনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারিকুল ইসলাম বলেন, বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে পুলিশের ওপর হামলা মামলার অজ্ঞাতনামা তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন