বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

একপর্যায়ে বৃদ্ধ সোনা মিয়াকে রক্ষায় তাঁর ছোট ভাই মো. আবদুর রশিদ হাওলাদার মেনাজ ফকিরের পা জড়িয়ে ধরে কাকুতিমিনতি করে ভাইয়ের প্রাণ ভিক্ষা চান। কিন্তু তাতে হামলাকারীরা ক্ষান্ত দেননি। পিটিয়ে হত্যা করে লোকজন নিয়ে মেনাজ ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। খবর পেয়ে আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহ আলম হাওলাদার ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত সোনা মিয়া হাওলাদারের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান। পুলিশ লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এ ঘটনায় এলাকাবাসী দোষীদের শাস্তি দাবি করেন। নিহত সোনা মিয়া হাওলাদারের ছেলে জালাল হাওলাদার বিচার দাবি করে বলেন, ‘আমার বাবাকে মেনাজ ফকির, মোতালেব, আদম আলী ফকির, আবুল মৃধা, মোস্তফাসহ ২০-২২ জন লোক পিটিয়ে হত্যা করেছে।’

আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার বলেন, নিহত সোনা মিয়া হাওলাদারের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন