default-image

বরগুনা সদরে বন্য শূকরের আক্রমণে এক বৃদ্ধ মারা গেছেন। আজ শুক্রবার দুপুরের দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের ক্রোক গ্রামীণ ব্যাংকসংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের নাম আবদুল মান্নান (৬৫)। তিনি ওই ইউনিয়নের ঢলুয়া এলাকার বাসিন্দা। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্বজনেরা জানান, আবদুল মান্নান শাপলা তোলার জন্য বিলে গিয়েছিলেন। হঠাৎ বন্য শূকর তাঁর ওপর আক্রমণ চালায়। এ সময় স্থানীয় কয়েকজন ঘটনাস্থল গিয়ে শূকরটিকে তাড়া করে বৃদ্ধকে উদ্ধার করে পাশের রাস্তায় নিয়ে আসেন। এর কিছু সময় পরই তিনি মারা যান। বজলুর রহমান নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, তিনি মাঠে কাজ করছিলেন। হঠাৎ চিৎকারের আওয়াজ শুনতে পেয়ে তাঁরা কয়েকজন লাঠিসোঁটা নিয়ে গিয়ে দেখতে পান, শূকরের কামড়ে ক্ষতবিক্ষত হয়ে পড়ে আছেন মান্নান। এ সময় তাঁরা আহত ওই বৃদ্ধকে উদ্ধার করেন এবং শূকরটিকে তাড়া করে তাড়িয়ে দেন।

আমি মাঠে কাজ করছিলাম। হঠাৎ চিৎকারের আওয়াজ শুনতে পেয়ে আমরা কয়েকজন লাঠিসোঁটা নিয়ে গিয়ে দেখতে পাই, শূকরের কামড়ে ক্ষতবিক্ষত হয়ে পড়ে আছেন মান্নান।
বজলুর রহমান, প্রত্যক্ষদর্শী
বিজ্ঞাপন

নিহত মান্নানের ছেলে বাদল বলেন, তাঁর বাবা একজন কৃষক। তিনি মাঠঘাট থেকে শাকসবজি তুলে বাজারে বিক্রি করতেন। প্রতিদিনের মতো আজ সকালেও তিনি বাড়ি থেকে বের হন। এরপর লোকজনের কাছে জানতে পারেন, শূকরের হামলায় তাঁর বাবা মারা গেছেন।

ওই এলাকার কয়েকজন ব্যক্তি জানান, তাঁরা কয়েক দিন ধরে ওই এলাকায় একটি বন্য শূকর বিচরণ করতে দেখেছেন। আবুল কালাম ও জীবন নামের দুজন জানান, শূকরটি তাঁদেরকেও তাড়া করেছিল।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বন বিভাগ বরগুনা রেঞ্জের বিট কর্মকর্তা মতিউর রহমান মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, বন বিভাগ শূকরটি ধরার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করছে।

বরগুনা সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ‘শূকরের হামলায় এক ব্যক্তি মারা গেছেন। আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছি।’

মন্তব্য পড়ুন 0