বরিশাল মেডিকেলের আরেক ইন্টার্ন চিকিৎসকের করোনা শনাক্ত

বিজ্ঞাপন
default-image

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আরেক ইন্টার্ন চিকিৎসকের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। গতকাল রোববার রাতে মেডিকেল কলেজের করোনা পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষার পর এ কথা জানানো হয়। এ নিয়ে চারজন ইন্টার্ন চিকিৎসক, একজন নার্স, একজন ছাত্রসহ এই প্রতিষ্ঠানের ছয়জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হলো।

এ ছাড়া জেলার অপর একটি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত চিকিৎসক দম্পতি, একজন ব্রাদার, তিনজন স্বাস্থ্যকর্মীর করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

স্বাস্ব্য বিভাগ সূত্র জানায়, বরিশাল জেলায় ১২ এপ্রিল প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর গতকাল পর্যন্ত ২২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ছয়জন চিকিৎসক, একজন মেডিকেল ছাত্র, দুজন নার্স, তিনজন স্বাস্থ্যকর্মীসহ স্বাস্থ্য বিভাগের ১২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। আক্রান্ত ব্যক্তিদের অর্ধেকের বেশি স্বাস্থ্য খাত–সংশ্লিষ্ট হওয়ায় কর্মকতারা উদ্বিগ্ন। তাঁরা এ জন্য স্বাস্থ্য বিভাগের সংশ্লিষ্টদের আরও সতর্কতা অবলম্বন করে চিকিৎসাসেবা দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক শ্যামল কৃষ্ণ মণ্ডল আজ সোমবার দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা স্বাস্থ্য বিভাগের সংশ্লিষ্টদের আরও সতর্কতার সঙ্গে পেশাগত কাজ করার অনুরোধ করছি। যেহেতু এটি খুবই স্পর্শকাতর ভাইরাস, সে জন্য সচেতনতায় শিথিলতা হলেই যে কারও আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকে। স্বাস্থ্য বিভাগের লোকজন যেহেতু সরাসরি সংক্রমিতদের নিয়ে কাজ করেন, সেহেতু তাঁদের আরও বেশি সতর্কতা অবলম্বন করা জরুরি।’


বরিশালের জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান বলেন, বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের করোনা পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষায় গতকাল দুজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। একজন ইন্টার্ন চিকিৎসক, অপরজন রূপাতলী এলাকার ২৮ বছর বয়সী এক যুবক। রাতেই দুজনের অবস্থান অনুযায়ী লকডাউন করা হয়েছে। তাঁরা কোন কোন স্থানে যাতায়াত করেছেন এবং কাদের সংস্পর্শে এসেছেন, তা চিহ্নিত করার কাজ চলছে। সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র জানায়, বরিশালে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয় ৯ এপ্রিল পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলায়। তিনি নারায়ণগঞ্জফেরত একজন শ্রমিক। নমুনা পরীক্ষায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার আগেই তিনি মারা যান। এরপর গতকাল পর্যন্ত বরিশাল বিভাগের ছয় জেলার মধ্যে ভোলা বাদে পাঁচ জেলায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ৪২ জনের। এর মধ্যে বরিশালে ২২ জন, বরগুনায় ১০ জন, পটুয়াখালীতে দুজন, পিরোজপুরে চারজন, ঝালকাঠিতে চারজন। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে বরগুনায় দুজন এবং বরিশাল ও পটুয়াখালীতে একজন করে মোট চারজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী মারা গেছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন