default-image

রাজশাহী নগরের সিটি বাইপাস এলাকায় সড়কের পাশে রাখা বর্জ্য পোড়ানোর জন্য আগুন দেওয়া হয়েছিল। সেখান থেকে ধোঁয়া সড়কে এসে পড়ে। ওই ধোঁয়ার মধ্যে পড়ে একটি ট্রাক ও বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এতে ঘটনাস্থলেই ট্রাকচালক মারা গেছেন। গুরুতর আহত অবস্থায় আরও চারজনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ট্রাকচালকের নাম জামানুর রহমান (৪০)। তাঁর বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার উজিরপুর গ্রামে।

এ বিষয়ে রাজশাহী নগরের শাহ্‌ মখদুম থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জুয়েল রানা বলেন, সিটি করপোরেশনের বর্জ্য পোড়ানো ধোঁয়ার কারণেই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। তবে কে বর্জ্যে আগুন দিয়েছিল, তা জানা যায়নি। দুর্ঘটনাকবলিত ট্রাক ও বাস সড়ক থেকে সরিয়ে নিয়ে যানবাহন চলাচলের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে।

ট্রাকের চালকের সহকারী ছিলেন শামীম হোসেন (২০)। তাঁর এক পা ভেঙে গেছে এবং মাথা ফেটে গেছে। তাঁকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আট নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। শামীম প্রথম আলোকে বলেন, তাঁরা ট্রাকে গম নিয়ে সকালে রাজশাহীর একটি মিলে দিতে এসেছিলেন। সেখান থেকে ফিরে যাচ্ছিলেন। নগরের আমচত্বর থেকে কাশিয়াডাঙ্গা মোড়ে দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় রাস্তার ধারের বর্জ্যের আগুনের ধোঁয়া এসে রাস্তা ঢেকে নেয়। কিছুই দেখতে পাচ্ছিলেন না। এরই মধ্যে একটি বাস এসে তাঁদের ধাক্কা দেয়।

বিজ্ঞাপন

বাসের যাত্রী শাহীন আলম বলেন, তাঁর বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুরে। তাঁরা ১৫ থেকে ১৬ জন ব্যবসায়ী বাসটি ভাড়া নিয়ে শাহজাদপুরে কাপড় কিনতে যাচ্ছিলেন। নগরের সিটি বাইপাস এলাকায় ট্রাকের সঙ্গে বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। বাসের কোনো যাত্রী মারা যাননি। তবে অনেকেই আহত হয়েছেন।

সিটি করপোরেশনের প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মামুন মো. ডলার বলেন, সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে বর্জ্য পোড়ানো হয় না। এলাকার কেউ আগুন দিতে পারে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন