বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্থানীয়রা বলেন, বিদ্যালয়টির পূর্ব, উত্তর ও দক্ষিণ পাশের শ্রেণিকক্ষ ঘেঁষে কয়েক বছর ধরে ৫০-৬০ জন মাছ ব্যবসায়ী পসরা সাজিয়ে মাছ বিক্রি করে আসছিলেন। শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকেরা মাছের নোংরা পানি আর আবর্জনার দুর্গন্ধে তাঁরা অতিষ্ঠ ছিলেন। বিষয়টি নিয়ে গত শুক্রবার প্রথম আলোতে ‘বিদ্যালয়ের তিন পাশে মাছের বাজার’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানায়, শুক্রবার রাতে সরাইল থানার পুলিশ বাজারে গিয়ে কয়েকজন ব্যবসায়ীকে শনিবার থেকে বিদ্যালয়টির আশপাশে বাজার না বসানোর নির্দেশ দেয়। কিন্তু তারপরও গতকাল ভোরে মাছ ব্যবসায়ীরা বিদ্যালয়ের পাশে বসতে শুরু করেন। ভোর সাড়ে ছয়টার দিকে উচালিয়াপাড়া ইয়াং স্টার ক্লাবের সভাপতি কামাল উদ্দিন, মিতালী সমাজ কল্যাণ সমিতির সভাপতি মাহবুব খান, হৃদয়ে সরাইল সংগঠনের সভাপতি ফয়সাল আহমেদ ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সহসভাপতি আহসান উল্লাহর নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন বাজারে উপস্থিত হন। তাঁরা বুঝিয়ে বিদ্যালয়ের পাশ থেকে মাছ ব্যবসায়ীদের সরিয়ে দেন।

প্রধান শিক্ষক শামছুন নাহার সুলতানা হক বলেন, ‘আমরা বড় একটি সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পেলাম। আজই আমরা বিদ্যালয়ের তিন পাশে জীবাণুনাশক ওষুধ ছিটিয়েছি।’

সরাইল থানার ওসি আসলাম হোসেন বলেন, কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গা থেকে অস্থায়ী বাজার উচ্ছেদের জন্য তাঁরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

ইউএনও আরিফুল হক বলেন, এখানে যেন আবার বাজার বসতে না পারে, সে জন্য নিয়মিত তদারকি করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন