default-image

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাটে দুই পক্ষের সহিংসতায় গুলিবিদ্ধ হয়ে শ্রমিক লীগের নেতা আলাউদ্দিন (৩২) নিহত হওয়ার ঘটনায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দিতে বলেছেন আদালত। আজ বুধবার দুপুরে শুনানি শেষে নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত এই নির্দেশ দেন।

এ ঘটনায় থানায় কোনো মামলা হয়েছে কি না, সে বিষয়ে আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিবেদন দাখিল করেছিল পুলিশ। গত সোমবার কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ–সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। সেই প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত আজ আলাউদ্দিন হত্যা মামলার তদন্ত পিবিআইকে করার নির্দেশ দিয়েছেন। একই সঙ্গে তদন্ত প্রতিবেদন আগামী ১ জুনের মধ্যে জমা দিতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

৯ মার্চ বসুরহাটে আওয়ামী লীগের আবদুল কাদের মির্জা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমানের (বাদল) অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষে শ্রমিক লীগের ওয়ার্ড পর্যায়ের সভাপতি আলাউদ্দিন গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। তিনি মিজানুর রহমানের অনুসারী। এ ঘটনায় আলাউদ্দিনের ছোট ভাই এমদাদ হোসেন ওরফে রাজু সেতুমন্ত্রীর ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জাসহ ১৬৪ জনের নাম উল্লেখ করে লিখিত অভিযোগ নিয়ে একাধিকবার থানায় গেলেও পুলিশ মামলা নেয়নি।

পরে ১৪ মার্চ এমদাদ হোসেন বাদী হয়ে নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ৪ নম্বর আমলি আদালতে একই আসামিদের বিরুদ্ধে একটি নালিশি মামলা করেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন