বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আনিসুল হক বলেন, ‘বাংলাদেশ কখনোই সাম্প্রদায়িক রাজনীতিকে প্রশ্রয় দেবে না। বঙ্গবন্ধু আমাদের যে সংবিধান উপহার দিয়েছেন, আমাদের সংবিধানের কথাগুলো জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা অক্ষরে অক্ষরে পালন করব।’

অনুষ্ঠানে বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী বলেন, কোভিড-১৯–এর দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় ভারতের প্রয়োজনে বাংলাদেশও পাশে দাঁড়িয়েছিল। বাংলাদেশের বন্ধু হিসেবে জনগণের কল্যাণের জন্য ভারত সরকার সামর্থ্য অনুযায়ী বাংলাদেশকে সহায়তা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, ২০২১ সালের মার্চ মাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশ সফরকালে বাংলাদেশ সরকারকে ১০৯টি লাইফ সাপোর্ট অ্যাম্বুলেন্স উপহার দেওয়ার কথা বলেছিলেন। সেই প্রতিশ্রুতির অংশ হিসেবে এই অ্যাম্বুলেন্স দেওয়া হয়েছে।

ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, ‘প্রকৃতি ও ভৌগোলিক অবস্থান সর্বদা আমাদের বন্ধু করে রাখে। আখাউড়া ভবিষ্যতে এই অঞ্চলের কেন্দ্রীয় জায়গা। আমরা যৌথভাবে নতুন ভবিষ্যৎ দেখতে পাচ্ছি। ভারতের সঙ্গে ব্যবসা ও বিদেশি ব্যবসার সুযোগ তৈরির মাধ্যমে এই অঞ্চল আরও উন্নতি করতে সক্ষম হবে। এই উন্নতি দুই দেশের সন্তানদের ভবিষ্যৎ পরিবর্তন করবে।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক হায়াত উদ-দৌলা খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মাসুদ বিন মোমেন, আইন মন্ত্রণালয়ের সচিব গোলাম সারওয়ার, পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন মুহাম্মদ একরাম উল্লাহ প্রমুখ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন