নওগাঁয় ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ

‘বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক উন্নয়নে মহাত্মা গান্ধী ও রবীন্দ্রনাথের অবদান রয়েছে’

বিজ্ঞাপন
default-image

বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ বলেছেন, ভারত ও বাংলাদেশের সম্পর্ক উন্নয়নে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও মহাত্মা গান্ধীর অসামান্য অবদান রয়েছে। তাঁরা দুজনই ছিলেন অসাম্প্রদায়িক চেতনার মানুষ। সেই চেতনা ধারণ করে সম্প্রীতির বন্ধনে এগিয়ে যাবে ভারত-বাংলাদেশ।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ মঙ্গলবার দুপুরে নওগাঁর আত্রাই উপজেলায় গান্ধী আশ্রম ও রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের পতিসরের কাছারিবাড়ি পরিদর্শনে গিয়ে এসব কথা বলেন রীভা গাঙ্গুলি দাশ। এ সময় রাজশাহীতে নিযুক্ত ভারতীয় সহকারী কমিশনার সঞ্জীব কুমার ভাট্টি, আত্রাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসলেম উদ্দীন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, ‘বাংলাদেশ ও ভারত দুই দেশই অসাম্প্রদায়িক চেতনা লালন করে। এই বৈশিষ্ট্যের কারণে সব সময়ই বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক মধুর ছিল। এ সম্পর্কে কোনো দিন চিড় ধরেনি। বরং অতীতের যেকোনো সময়ের তুলনায় বর্তমানে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক আরও মধুর ও দৃঢ় রয়েছে।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আরেক প্রশ্নের জবাবে রীভা গাঙ্গুলি বলেন, ‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ও চোরাচালান সীমান্ত হত্যার একটি অন্যতম বড় কারণ। এসব কেন হচ্ছে, তা খতিয়ে দেখতে দুই দেশের সরকার কাজ করছে।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আগের দিন সোমবার ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ নওগাঁর মান্দায় ঐতিহ্যবাহী রঘুনাথ জিউ মন্দিরের তীর্থযাত্রী বিশ্রামালয়ের ভবন উদ্বোধন করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন