বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিআইডব্লিউটিএ ও লঞ্চ মালিক সমিতি সূত্র জানায়, ঢাকা থেকে বাসে শিমুলিয়া এসে পদ্মা নদী পাড়ি দিয়ে যাত্রীরা দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলোতে যাতায়াত করে। নদী পার হতে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া, মাদারীপুরের বাংলাবাজার ও শরীয়তপুরের জাজিরার সাত্তার মাদবর-মঙ্গল মাঝির ঘাট ব্যবহার করা হয়। এ দুটি নৌপথে বর্তমানে ৮৭টি লঞ্চ ও ১৫৩টি স্পিডবোট চলাচল করছে। আর যানবাহন পারাপারের জন্য দিনে-রাতে ১০টি ফেরি চলাচল করছে।

ঈদ সামনে রেখে বর্তমানে ভোর ৫টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত নৌপথে লঞ্চে যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে। বাংলাবাজার ঘাটে দুটি ফেরির টার্মিনাল, লঞ্চ টার্মিনাল ও স্পিডবোট টার্মিনাল রয়েছে। আধা কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের এ ঘাটে নির্বিঘ্নে যাত্রী ও যানবাহন পারাপারের জন্য কিছুটা দূরত্ব বজায় রেখে টার্মিনালগুলো স্থাপন করা হয়েছে। তবে ওই ফাঁকা স্থানগুলোতে এখন বালু, সিমেন্ট ও পাথরবোঝাই বাল্কহেড নোঙর করে রাখা হচ্ছে।

default-image

বিআইডব্লিউটিসির বাংলাবাজার ঘাটের ব্যবস্থাপক মো. সালাউদ্দিন আহম্মেদ বলেন, ‘ফেরির পন্টুনের আশপাশে আবার বাল্কহেড নোঙর করে রাখা হচ্ছে। এ কারণে লঞ্চ ও স্পিডবোট ফেরিঘাটে ভেড়ার সময় সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। তাদের অনেকবার বাল্কহেড সরিয়ে নিতে বলা হয়েছে। কিন্তু তারা আমাদের কথা গুরুত্ব দেয় না। যেকোনো সময় আবার দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক স্পিডবোটচালক প্রথম আলোকে বলেন, বাংলাবাজার ঘাট অনেক ব্যস্ত থাকে। চারদিকে নৌযান চলাচল করে। কিন্তু ঘাটের কাছে বাল্কহেড রাখার কারণে তীরে ভিড়তে সমস্য হচ্ছে। যেকোনো সময় ধাক্কা লাগতে পারে। বাল্কহেডগুলোর মালিক স্থানীয় প্রভাশালী হওয়ায় কেউ তাঁদের সরাতে পারছে না।

নোঙর করে রাখা এক বাল্কহেডের চালক বেলায়েত হোসেন বলেন, বিভিন্ন এলাকা থেকে বালু, সিমেন্ট ও পাথর নিয়ে এই ঘাটে আসি। মালামাল নামানোর পরই বাল্কহেড সরিয়ে নেওয়া হয়।
জানতে চাইলে বিআইডব্লিউটিএর বাংলাবাজার ঘাটের পরিবহন পরিদর্শক আক্তার হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ঘাট এলাকায় বালুবোঝাই বা অন্য মালামালবোঝাই বাল্কহেড নোঙর করা নিষিদ্ধ। বাল্কহেড সরিয়ে দেওয়ার জন্য নৌ পুলিশকে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে চরজানাযাত নৌ পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. জাহানুর আলী বলেন, ‘বাংলাবাজার ঘাটে কোনো বাল্কহেড নোঙর করতে দেওয়া হয় না। মালামাল নিয়ে যে দু-একটি আসে, তা–ও আমাদের নজরে এলে তখনই সরিয়ে দেওয়া হয়।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন