default-image

পটুয়াখালীর বাউফলে এক বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিকসহ একই পরিবারের চার সদস্যকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখমের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত ব্যক্তিদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বিকেলে সূর্য্যমনি ইউনিয়নের সূর্য্যমনি গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও আহত ব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সূর্য্যমনি গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবুল কালাম আজাদের সঙ্গে একই গ্রামের মো. নিজামুল হাওলাদারের জমি–সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। নিজামুল হাওলাদার আবুল কালামের জমি দখল করে আজ ঘর নির্মাণ করছিলেন। খবর পেয়ে বিকেল চারটার দিকে ওই ঘর নির্মাণে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম বাধা দেন। এ নিয়ে নিজামুলের সঙ্গে আবুল কালামের কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে নিজামুলের নেতৃত্বে পাঁচ-সাতজন আবুল কালামের ওপর হামলা চালান। এ সময় আবুল কালামকে রক্ষা করতে তাঁর ছেলে দৈনিক ইত্তেফাকের দশমিনা উপজেলা প্রতিনিধি কামরুল ইসলাম ওরফে সোহাগ (৩৫) ও আরেক ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪০) এবং ভাতিজা মো. ওহাব হাওলাদার (৬২) এগিয়ে যান। তখন তাঁদেরকেও পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়। স্থানীয় লোকজন আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

বিজ্ঞাপন
সূর্য্যমনি গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবুল কালাম আজাদের সঙ্গে একই গ্রামের মো. নিজামুল হাওলাদারের জমি–সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল।

অভিযোগের বিষয়ে নিজামুল হাওলাদার প্রথম আলোকে বলেন, তিনি তাঁর জমিতে ঘর নির্মাণ করছিলেন। এতে আবুল কালাম ও তাঁর লোকজন বাধা দিয়ে বিশৃঙ্খল পরিবেশ তৈরি করেন। হামলা ও মারধরের অভিযোগ সত্য না।

বাউফল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আল মামুন বলেন, বিষয়টি জানার পর ঘটনাস্থল ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন