default-image

মমিনপুর গ্রামের বাসিন্দা গোলাম মোস্তফা বলেন, সারা দিন গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি থাকার কারণে তিনি ঘরেই ছিলেন। হঠাৎ অল্প সময়ের ঝড়ে তাঁর মাথা গোঁজার ঘরটাও শেষ হয়ে গেছে।

ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের তালিকা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থার নেওয়ার কথা জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আল আমিন।

এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে দুই মাস আগে ঘর নির্মাণ করেছিলেন হতদরিদ্র ফরিদ। তিনি জানান, মুহূর্তে মধ্যে তাঁর স্বপ্নের ঘরটির ওপর গাছ পড়ে দুমড়েমুচড়ে ভেঙে পড়ল।
স্থানীয় উদ্ধারকর্মী গোলাম আবু সাইদ বলেন, ঝড়ে প্রায় অর্ধশত ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। কয়েক শ গাছ ভেঙে পড়েছে।

পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির বাউফল আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপমহাব্যবস্থাপক সোহরাব হোসেন বলেন, ঝড়ে মমিনপুর গ্রামের বিদ্যুৎ সরবরাহ লাইনের আটটি খুঁটি উপড়ে পড়েছে। বিদ্যুতের কর্মীরা বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন