বাগমারায় আওয়ামী লীগ নেতার গ্রেপ্তারের খবরে এলাকায় মিষ্টি বিতরণ

রাজশাহীর বাগমারার আউচপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতিকে গ্রেপ্তারের খবর প্রকাশের পর এলাকায় লোকজনের মধ্যে মিষ্টি বিতরণ করা হয়। আউচপাড়ার হাটগাঙ্গোপাড়া মোড়ে
ছবি: প্রথম আলো

হত্যা, চাঁদাবাজি, মারামারিসহ একাধিক মামলার আসামি রাজশাহীর বাগমারার আউচপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সরদার জান মোহাম্মদ (৫০)। তবে গ্রেপ্তার করা যাচ্ছিল না তাঁকে। অবশেষে রাজশাহীর জেলা গোয়েন্দা ও থানা–পুলিশ যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে গতকাল বুধবার রাতে তাঁকে গ্রেপ্তার করেছে। তাঁর বাড়ি উপজেলার সারন্দি গ্রামে। জান মোহাম্মদের গ্রেপ্তারের খবরে এলাকার লোকজন সন্তোষ প্রকাশ করে মিষ্টি বিতরণ করেছেন।

রাজশাহীর বাগমারার আউচপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সরদার জান মোহাম্মদ
ছবি: সংগৃহীত

বাগমারা থানা–পুলিশ সূত্রে জানা যায়, এলাকায় সম্প্রতি এক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে চাঁদা দাবি করে চাঁদা না পেয়ে মারপিট করেন জান মোহাম্মদ। এ ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে ২৬ মার্চ থানায় একটি মামলা হয়। ওই মামলার পর থেকে আত্মগোপনে চলে যান তিনি। এ ছাড়া আওয়ামী লীগের এই নেতা পুকুরে বিষ প্রয়োগে মাছ নিধনের একটি ঘটনা সাজিয়ে এলাকায় বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি করেন। এর পর থেকে পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালিয়ে আসছিল।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় জান মোহাম্মদকে গতকাল রাতে জেলা গোয়েন্দা ও থানা–পুলিশ যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে রাজশাহী থেকে গ্রেপ্তার করে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তারের বিষয় নিশ্চিত করে বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাক আহম্মেদ প্রথম আলোকে বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে হত্যা, চাঁদাবাজি ও মারপিটের অভিযোগে একাধিক মামলা আছে। এ ছাড়া সন্ত্রাসী কার্যকলাপেরও অভিযোগ রয়েছে আওয়ামী লীগের এই নেতার বিরুদ্ধে। পুলিশ দীর্ঘদিন ধরে তাঁকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালিয়ে আসছিল।

জান মোহাম্মদকে গ্রেপ্তারের খবর জানার পর স্থানীয় লোকজন আউচপাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন মোড়ে ও বাজারে মিষ্টি বিতরণ করেন। তাঁদের ভাষ্য, এলাকায় ত্রাস হিসেবে পরিচিত ছিলেন জান মোহাম্মদ। সাধারণ লোকজন ছাড়াও দলের অনেকেই তাঁর নির্যাতনের শিকার হয়েছেন।