default-image

বাগমারা থানা–পুলিশ সূত্রে জানা যায়, এলাকায় সম্প্রতি এক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে চাঁদা দাবি করে চাঁদা না পেয়ে মারপিট করেন জান মোহাম্মদ। এ ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে ২৬ মার্চ থানায় একটি মামলা হয়। ওই মামলার পর থেকে আত্মগোপনে চলে যান তিনি। এ ছাড়া আওয়ামী লীগের এই নেতা পুকুরে বিষ প্রয়োগে মাছ নিধনের একটি ঘটনা সাজিয়ে এলাকায় বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি করেন। এর পর থেকে পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালিয়ে আসছিল।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় জান মোহাম্মদকে গতকাল রাতে জেলা গোয়েন্দা ও থানা–পুলিশ যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে রাজশাহী থেকে গ্রেপ্তার করে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তারের বিষয় নিশ্চিত করে বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাক আহম্মেদ প্রথম আলোকে বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে হত্যা, চাঁদাবাজি ও মারপিটের অভিযোগে একাধিক মামলা আছে। এ ছাড়া সন্ত্রাসী কার্যকলাপেরও অভিযোগ রয়েছে আওয়ামী লীগের এই নেতার বিরুদ্ধে। পুলিশ দীর্ঘদিন ধরে তাঁকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালিয়ে আসছিল।

জান মোহাম্মদকে গ্রেপ্তারের খবর জানার পর স্থানীয় লোকজন আউচপাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন মোড়ে ও বাজারে মিষ্টি বিতরণ করেন। তাঁদের ভাষ্য, এলাকায় ত্রাস হিসেবে পরিচিত ছিলেন জান মোহাম্মদ। সাধারণ লোকজন ছাড়াও দলের অনেকেই তাঁর নির্যাতনের শিকার হয়েছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন