বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নাম প্রকাশ না করার শর্তে গোবিন্দপাড়া ইউপির এক চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জানান, তিনি ৩০ হাজার টাকা আজ সকালে দিয়েছেন। পরে সন্দেহ হওয়ায় প্রতারিত হওয়ার বিষয়টি তিনি বুঝতে পারেন।

বাগমারা থানার ওসি মোস্তাক আহম্মেদ প্রথম আলোকে বলেন, তিনি বিষয়টি জানার পর উপজেলার প্রার্থীদের ফোন করে সতর্ক করে দিয়েছেন। ইতিমধ্যে অনেকে প্রতারিত হওয়ার কথাও জানিয়েছেন। প্রতারক চক্রকে শনাক্ত করতে পুলিশ কাজ শুরু করছে।

গণিপুর ইউপির আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এস এম এনামুল হক প্রথম আলোকে বলেন, আজ সকালে তাঁর কাছে ফোন করে টাকা চাওয়া হয়েছিল। তিনি ওসির কণ্ঠের সঙ্গে পরিচিত থাকায় প্রতারক চক্রের বিষয়টি নিশ্চিত হন।

পঞ্চম ধাপে আগামী ৫ জানুয়ারি বাগমারা উপজেলার ১৬টি ইউপিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন