বাগেরহাটে করোনা শনাক্তের হার ৪৩ শতাংশ, মোংলায় ৬৬ শতাংশ

করোনাভাইরাস
প্রতীকী ছবি

বাগেরহাটে গতকাল রোববার সকাল ৮টা থেকে আজ সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ২০১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৮৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪৩ দশমিক ৭৮ শতাংশ। তবে সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা মোংলা উপজেলায় এ সময়ে র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষায় ২৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ শনাক্তের হার ৬৬ দশমিক ৬৭ শতাংশ। এ সময়ে জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

এ নিয়ে বাগেরহাটে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ৬৩০। এর মধ্যে ১ হাজার ৭০০ জন ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন। এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে জেলায় মারা গেছেন ৬৬ জন।

তিন দফা বিধিনিষেধ দিয়েও মোংলায় করোনা সংক্রমণের হার নিয়ন্ত্রণে আসছে না।

তিন দফা বিধিনিষেধ দিয়েও মোংলায় করোনা সংক্রমণের হার নিয়ন্ত্রণে আসছে না। জেলার অন্যান্য উপজেলায়ও সংক্রমণের হার ক্রমে ওপরে উঠছে। বিধিনিষেধ পালনে প্রচারণা চলছে পুরো জেলায়, তবে তা মানছে না কেউ। গতকাল থেকে নতুন করে বাগেরহাট শহরে প্রচারণা শুরু করেছে জেলা প্রশাসন।

বাগেরহাটের সিভিল সার্জন কে এম হ‌ুমায়ূন কবির বলেন, তিন সপ্তাহ ধরে জেলায় সংক্রমণের হার ঊর্ধ্বমুখী। প্রথমে মোংলায় সংক্রমণ বাড়তে থাকে। এখন তা আশপাশের উপজেলাগুলোতেও ছড়াচ্ছে। হাসপাতালে রোগীর চাপ বাড়ছে। সংক্রমণ রোধের একটাই উপায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা। স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চললে লকডাউন দিয়ে কোনো উপকারে আসবে না। সবাইকে মাস্ক পরতে ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে আহ্বান জানিয়ে তিনি আরও বলেন, জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার আগের দিনের তুলনায় ৮ শতাংশ বেড়েছে। মোংলা উপজেলায় আগের দিনের তুলনায় শনাক্তের হার ২২ শতাংশ বেড়েছে।