বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ওই ভিডিওতে দেখা যায়, ওই গৃহবধূর শ্বশুরবাড়ির উঠানে চুনখোলা ১ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য কাওসার চৌধুরী ওই নারীকে লাঠি দিয়ে আঘাত করছেন। এর আগে এক তরুণ ওই নারীকে জুতার মালা পরিয়ে দেন। পরে ওই নারীকে পেছন থেকে ঠেলে দিয়ে উঠানে মানুষের সামনে ঘুরিয়ে আনেন ওই তরুণ। এ সময় উপস্থিত মানুষের মধ্যে থেকে একজন বলেন, ‘দ্যাশের থেকে খ্যাদায় দেও।’ এ ছাড়া আরও নানা অপ্রকাশযোগ্য ভাষা ব্যবহার করে ওই গৃহবধূকে অপবাদ দেওয়া হয়। পরে কাওসার চৌধুরীকে দেখা যায়, লাঠি দিয়ে ওই গৃহবধূকে পেটাচ্ছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কাওসার চৌধুরী বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে ওই গৃহবধূর সঙ্গে অন্য এক পুরুষের অবৈধ সম্পর্ক ছিল। গত সোমবার রাতে স্থানীয় লোকজন ওই দুজনকে আপত্তিকর অবস্থায় ধরে ফেলে। পরে স্থানীয় মানুষের খবরের ভিত্তিতে মঙ্গলবার সকালে আমি সেখানে যাই। তবে আমি ওই গৃহবধূকে জুতার মালা পরাইনি।’

মারধরের ব্যাপারে জানতে চাইলে কাওসার চৌধুরী বলেন, এটা কোনো বিচার নয়। স্থানীয়ভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে ওই গৃহবধূকে মারা হয়েছে। ওই গৃহবধূর প্রবাসী স্বামী আরও কঠোর শাস্তি দেওয়ার কথা বলেছেন বলে দাবি করেন তিনি।

তবে ওই গৃহবধূ অভিযোগ বলেন, বাড়ির আশপাশের লোকজন মিথ্যা অপবাদ দিয়ে তাঁকে মারধর করেছে। মারধরের সময় তাঁর গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন ও একটি মুঠোফোন ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে। মারধরের ওই ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ায় তাঁর মানসম্মানও শেষ হয়েছে।

এদিকে ঘটনাটি জানাজানি হলে গতকাল দুপুরে মোল্লাহাটের সহকারী কমিশনার (ভূমি) অনিন্দ্য মণ্ডল ও উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা রুনিয়া আক্তার ঘটনাস্থলে যান। তবে তাঁরা ওই গৃহবধূর সঙ্গে দেখা করতে পারেননি।

জানতে চাইলে মোল্লাহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. ওয়াহিদ হোসেন মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ঘটনাটি জানার পর তৎক্ষণাৎ খোঁজ নেওয়া হয়েছে। তবে ভুক্তভোগী গৃহবধূ বা তাঁর পরিবারের কাউকে পাওয়া যায়নি। তাঁরা এলাকায় নেই। তবে তাঁদের সব ধরনের আইনি সহায়তা দেওয়া হবে। যেহেতু ঘটনার সঙ্গে একজন জনপ্রতিনিধির নাম এসেছে, তাই বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সোমেন দাশ বলেন, ওই গৃহবধূর পরিবারের লোকজন বাড়িতে নেই। তবে বিভিন্ন মাধ্যমে তাঁর পরিবার সদস্যদের সঙ্গে কথা হয়েছে। ভিডিও ছড়িয়ে পড়া নিয়ে তাঁরা বিব্রত হয়েছেন। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ ও তাঁর পরিবারকে অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন