বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুর-ই-আলম সিদ্দিকী ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন র‌্যাব-৬–এর পুলিশ সুপার আল আসাদ মো. মাহফুজুল ইসলাম, বন্য প্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের খুলনা কার্যালয়ের বন্য প্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা তন্ময় আচার্য, পরিদর্শক রাজু আহমেদ প্রমুখ।

অভিযানে উদ্ধার হওয়া জীবিত প্রাণীগুলোর মধ্যে আছে—১টি কুমির, ২টি চিত্রা হরিণ, ১টি হনুমান, ৫টি বানর, ১টি ময়ূর, ২টি উটপাখি, ৫টি অস্ট্রেলিয়ান ঘুঘু, ২টি কচ্ছপ, ৭টি বক ও ২টি মাছমুড়াল পাখি।

default-image

র‌্যাব–৬-এর কর্মকর্তা পুলিশ সুপার আল আসাদ মো. মাহফুজুল ইসলাম বলেন, চন্দ্রমহল ইকোপার্কের মালিক অবৈধভাবে এসব প্রাণী লালন–পালন করে আসছিলেন, যা বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইনের পরিপন্থী। এ জন্য সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে চন্দ্রমহল ইকোপার্কে অভিযান চালিয়ে প্রাণীগুলো উদ্ধার করা হয়। প্রাণীগুলো বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এসব প্রাণী অবমুক্ত করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন