বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানিয়েছেন, জেলা শহর থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে কুহালং ইউনিয়নের ক্যমলংপাড়া গতকাল সন্ধ্যায় ২০ থেকে ২২ জনের অস্ত্রধারী একটি দল ঘেরাও করে। সশস্ত্র ব্যক্তিরা পল্লিচিকিৎসক উগ্য মারমাকে খুঁজতে থাকেন। উগ্য মারমাকে দোকানের সামনে পেয়ে কিছু দূর হাঁটিয়ে সড়ক থেকে একটি মাহিন্দ্র গাড়িতে তুলে নিয়ে যান। আজ সকাল নয়টার দিকে বাকিছড়া ব্রিকফিল্ড এলাকা থেকে তাঁর লাশ পাওয়া যায়। বান্দরবান-চন্দ্রঘোনা-রাঙামাটি সড়কে জেলা শহরের কাছাকাছি হয়ে ক্যমলংপাড়া থেকে বাকিছড়া ব্রিকফিল্ড এলাকা আনুমানিক তিন কিলোমিটার দূরে। জমিজমা নিয়ে উগ্য মারমাদের পারিবারিক দ্বন্দ্ব রয়েছে। তবে জমিজমার দ্বন্দ্বে অপহরণের ঘটনা ঘটেছে কি না, পাড়াবাসী তা জানাতে পারেননি।

কুহালং ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য ও ক্যমলংপাড়াবাসী মং উ চিং মারমা জানিয়েছেন, পাড়াবাসী সশস্ত্র ব্যক্তিদের চিনতে পারেননি।

বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, অপহৃত উগ্য মারমার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের জন্য সেনাবাহিনী ও পুলিশ যৌথ অভিযান চালাচ্ছে। দুর্বৃত্তরা উগ্য মারমাকে মাথার পেছনের অংশে আঘাত করে হত্যা করেছে। মাথার সামনে কোনো আঘাত নেই। এ ছাড়া শরীরে আর কোথাও আঘাতের কোনে চিহ্ন নেই।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন