default-image

বান্দরবানে আজ বুধবার থেকে ১২ এপ্রিল পর্যন্ত কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিপণিবিতানগুলো খোলা রাখার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। ব্যবসায়ী সমিতির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে পাহাড়িদের সাংগ্রাইং বা বৈসাবি উৎসবের জন্য জেলা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সিদ্ধান্ত মোতাবেক সকাল আটটা থেকে বেলা দুইটা পর্যন্ত দোকানপাট খোলা রাখা যাবে।

জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সদস্যসচিব ও সিভিল সার্জন অংসুইপ্রু মারমা বলেন, বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নেতারা দোকান খোলা রাখার আবেদন করেছেন। এতে তাঁরা বলেছেন, পাহাড়িদের উৎসবের জন্য ব্যবসায়ীরা পণ্য সংগ্রহ করেছেন। দোকানপাট বন্ধ থাকলে এবং সংগৃহীত পণ্য বিক্রি করতে না পারলে ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। ব্যবসায়ীদের আবেদনের বিষয়টি বিবেচনা করে করোনা প্রতিরোধ কমিটি সভা ডাকে। জেলা প্রশাসক ও করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিষয়টি আলোচনা করা হয়।

বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ চৌধুরী বলেন, ব্যবসায়ীরা টিকে থাকার সংকটে পড়েছেন। এবার ব্যবসায়ীরা পাহাড়িদের সবচেয়ে বড় সামাজিক-সাংস্কৃতিক উৎসব সাংগ্রাইং বা বৈসাবিকে সামনে রেখে সব পুঁজি বিনিয়োগ করে পণ্য সংগ্রহ করেছেন। সংগ্রহ করা পণ্য বিক্রি করতে না পারলে পথে বসার উপক্রম হবে। এ জন্য সীমিত পরিসরে ও কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকান খোলা রাখার জন্য তাঁরা আবেদন করেছিলেন।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) লুৎফর রহমান জানিয়েছেন, জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভায় কাপড়ের দোকান, পাদুকা, প্রসাধনীসহ কিছু পণ্যের দোকান শর্তসাপেক্ষে খোলা রাখার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। ব্যবসায়ীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এরপরও কঠোরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হবে। কোথাও স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দোকানপাটও বন্ধ করে দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন