বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জানিয়েছেন, নিহত মংক্যচিং মারমা গতকাল তাঁর স্ত্রীকে নিয়ে আসার জন্য শ্বশুরবাড়িতে গিয়েছিলেন। সেখানে রাত সাড়ে ১২টার দিকে ছয়-সাতজনের অস্ত্রধারী একটি দল পাড়ায় এসে তাঁকে খুঁজতে থাকে। একপর্যায়ে অস্ত্রধারীরা মংক্যচিং মারমার শ্বশুরবাড়ি ঘিরে ফেলে তাঁকে বাইরে বের হওয়ার জন্য ডাকাডাকি করে। মংক্যচিং বাইরে বের না হলে অস্ত্রধারীরা ঘরের ভেতরে ঢুকে তাঁকে গুলি করে। এতে ঘটনাস্থলেই মংক্যচিংয়ের মৃত্যু হয়।

রূপসীপাড়া ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য সীতারঞ্জন বড়ুয়া বলেন, অস্ত্রধারীরা মংক্যচিংকে চাকমা ভাষায় বলেছেন, ‘টাকা না দিয়ে পালিয়ে এসেছ কেন?’ এরপর অস্ত্রধারীরা মংক্যচিংকে গুলি করে। তবে অস্ত্রধারীদের পরিচয় তিনি জানাতে পারেননি।

এ বিষয়ে লামা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, নিহত মংক্যচিং মারমার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অস্ত্রধারীর পরিচয় জানা যায়নি। তদন্তের পর এ বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন