বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রাম জেলা সরকারি কৌঁসুলি এ কে এম সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, সহিংসতার তিন মামলায় জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জামিন নামঞ্জুর হওয়ায় আসামি ইনামুল হাসানের আইনজীবী জেলা ও দায়রা জজ আদালতে জামিনের আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে বিরোধিতা করা হলে উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন নামঞ্জুর করেন।

গত ২১ মে রাতে র‍্যাব হাটহাজারীর ফতেয়াবাদ থেকে ইনামুলকে গ্রেপ্তার করে। তিনি বাবুনগরীর পক্ষ থেকে হেফাজতের বিবৃতি ও প্রেস বিজ্ঞপ্তি পাঠাতেন। তিনি হাটহাজারী উপজেলা হেফাজতের প্রচার সম্পাদক ছিলেন।

গত ২৬ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভের জেরে চট্টগ্রামের হাটহাজারী ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সংঘর্ষ হয়। এ সময় হাটহাজারী থানা ভবন, ভূমি অফিস ও ডাকবাংলোতে ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সাড়ে চার হাজার ব্যক্তিকে আসামি করে হাটহাজারী থানায় ১০টি মামলা করে পুলিশ। এতে প্রয়াত জুনায়েদ বাবুনগরীসহ ১৪৮ জনের নাম উল্লেখ করা হয়। ১০ মামলায় এ পর্যন্ত ৮৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন