default-image

সপ্তম শ্রেণির এক মাদ্রাসাছাত্রী বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বেলা দুইটার দিকে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়নে বন্ধ করা হয় এ বাল্যবিবাহ।

সাতক্ষীরা জেলা বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ কমিটির প্রশাসনিক প্রধান সাকিবুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তিনি ও মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের সাতক্ষীরা জেলা অফিসের কর্মচারী লুৎফুন্নাহার ও কবরি ওই কিশোরীর বাড়িতে যান। তাঁরা বিয়ের তোড়জোড় দেখে স্থানীয় ইউপি সদস্য নূর ইসলামকে জানালে তিনিও ওই কিশোরীর বাড়িতে আসেন।

তাঁরা দেখতে পান মেয়ের জন্মসনদ অনুযায়ী বয়স ১৩ বছর। এদিকে কনের জন্মসনদ দেখাদেখির একপর্যায়ে বর গা ঢাকা দেন। পরে কনের বাবা ও মাকে বাল্যবিবাহের কুফল সম্পর্কে অবহিত করলে তাঁরা মুচলেকা দিয়ে অঙ্গীকার করেন তাঁদের মেয়ের বয়স ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবেন না।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0