বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ফোরামের যুগ্ম আহ্বায়ক শামীমা সুলতানার সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি স্বীকার করেন, করোনাকালে খুলনায় বাল্যবিবাহ বেড়েছে। বিভিন্ন অজুহাতে অভিভাবকেরা সন্তানদের অন্ধকার ভবিষ্যতে ঠেলে দিচ্ছেন। বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ করতে না পারলে ভয়াবহ বিপর্যয় নেমে আসবে বলে মনে করেন তিনি। এ জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে ওই সামাজিক ব্যাধি নিরসনে কাজ করার আহ্বান জানান খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র।

সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সাইফুল ইসলাম, খুলনা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার সরদার রকিবুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানভীর আহম্মদ, মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের উপপরিচালক হাসনা হেনা। খুলনার স্থানীয় সাংবাদিক মুহাম্মদ নুরুজ্জামানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য দেন ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক আমেনা সুলতানা, স্বাগত বক্তব্য দেন ফোরামের যুগ্ম আহ্বায়ক জোবায়ের আহম্মদ খান।

এ সময় বক্তারা বলেন, দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ, আর্থসামাজিক নিরাপত্তার অজুহাতে খুলনায় বাল্যবিবাহের ঘটনা বাড়ছে। অসচেতন অভিভাবকেরা বয়স জালিয়াতির মাধ্যমে অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েদের বিয়ে দিয়ে নিশ্চিত মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছেন। এ অবস্থা প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিক, আইনজীবী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ কঠোর অবস্থান নিতে হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন