default-image

ঢাকার সাভার উপজেলার আশুলিয়ায় বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে শামসুল আলম (৪৫) নামের পোশাক কারখানার এক কর্মকর্তার নিহত হওয়ার ঘটনায় তিনটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেন শ্রমিকেরা। এ সময় কয়েকটি বাসে ভাঙচুর চালান তাঁরা। আজ বৃহস্পতিবার রাতে আব্দুল্লাহপুর-বাইপাইল সড়কের নরসিংহপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

শামসুল আলম আশুলিয়ার শারমিন গ্রুপের একটি পোশাক কারখানায় প্রশাসনিক কর্মকর্তা (অ্যাডমিন অফিসার) হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তাঁর বাড়ি কক্সবাজারের মহেশখালীতে।

পুলিশ ও কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ছুটির পর আজ রাত আটটার দিকে শামসুল আলম কারখানার সামনে আব্দুল্লাহপুর-বাইপাইল সড়ক পার হচ্ছিলেন। এ সময় ঢাকার দিক থেকে আসা একটি বাস তাঁকে চাপা দিয়ে চলে যায়। পরে শ্রমিকেরা তাঁকে উদ্ধার করে স্থানীয় নারী ও শিশু হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

বিজ্ঞাপন

শামসুল আলমের মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে শ্রমিকদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। উত্তেজিত শ্রমিকেরা তিনটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেন। এ সময় তাঁরা কয়েকটি যানবাহন ভাঙচুর করেন। এরপর তাঁরা সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকেন। পরে পুলিশ তাঁদের বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে দেয়। এর আগে বাসে আগুন দেওয়ার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নেভায়। তবে তাঁর আগেই বাস পুড়ে যায়।

রাত সাড়ে নয়টার দিকে যোগাযোগ করা হলে আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম বলেন, পোশাক কারখানার কর্মকর্তা নিহত হওয়ার ঘটনায় ওই কারখানার শ্রমিকেরা বাসে আগুন দেওয়ার পাশপাশি কয়েকটি যানবাহন ভাঙচুর করে সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন। বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন