বিজ্ঞাপন

মারা যাওয়া দুজন হলেন হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার শ্রীকৃষ্ণপুর গ্রামের গোপেশ রায়ের স্ত্রী বিউটি রায় (৪০) ও তাঁর ছেলে গৌরব রায় (১৬)। তাঁরা বাসের যাত্রী ছিলেন। দুর্ঘটনায় আহতদের মধ্যে রয়েছেন সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক খায়রুল বাশার (৪৫), তাঁর স্ত্রী খালেদা আক্তার (৩৫), দুই সন্তান ও তাঁদের এক গৃহকর্মী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সিলেটগামী একটি প্রাইভেটকারের সঙ্গে শেরপুরগামী একটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে প্রাইভেটকারের সামনের অংশ দুমড়েমুচড়ে যায় এবং বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কে উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই বিউটি রায় মারা যান। আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক গৌরব রায়কে মৃত ঘোষণা করেন।

দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, বাস ও প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষে মা-ছেলের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আরও ৬-৭ জন আহত হয়েছেন। তাঁরা সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনাস্থল থেকে বাস ও প্রাইভেটকারটি জব্দ করে থানায় নেওয়া হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন