default-image

টাঙ্গাইলের বাসাইলে ছোট ভাইয়ের বিরুদ্ধে বড় ভাইকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার উপজেলার বাথুলীসাদী তোলাতলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় স্থানীয় ছোট ভাইকে পিটুনি দিলে তিনি আহত হন।

নিহত ব্যক্তির নাম মজিদ মিয়া (৩৩)। তিনি বাসাইলের কাশিল ইউনিয়নের বাথুলীসাদী তোলাতলা গ্রামের সিন্টু মিয়ার ছেলে। আহত অবস্থায় ছোট ভাই শফিক মিয়াকে (৩০) টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানান, সকাল নয়টার দিকে বাড়ির তাঁতযন্ত্র নিয়ে সিন্টু মিয়ার সঙ্গে তাঁর ছেলে শফিকের বাগবিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে বড় ছেলে মজিদ ও আরেক ছেলে সাভু গিয়ে তাঁদের ঝগড়া থামানোর চেষ্টা করে। এ সময় শফিকের সঙ্গে তাঁদের মারামারি শুরু হয়।

একপর্যায়ে শফিক তাঁর বড় ভাই মজিদকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে কোপ দেন। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। মারামারির সময় ছোট ভাই শফিককে স্থানীয় লোকজন পিটুনি দেন। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। তাঁকেও টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহত ব্যক্তির স্ত্রী মিলি বেগম জানান, বাড়ির তাঁতযন্ত্র ও জমি নিয়ে শফিক মাঝেমধ্যেই তাঁর স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করতেন। সকালে এ নিয়ে তাঁর শ্বশুরের সঙ্গে শফিকের ঝগড়া শুরু হয়। এ সময় ঝগড়া থামাতে গেলে শফিক তাঁর স্বামী মজিদকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। এতে তাঁর মৃত্যু হয়।

বাসাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুনুর রশিদ বলেন, এ ঘটনায় মামলা করার প্রক্রিয়া চলছে। ছোট ভাই শফিক মিয়া পুলিশি পাহারায় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন