default-image

নাটোরের লালপুর উপজেলায় বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে মা-মেয়ে মারা গেছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন বাসের ১৫ যাত্রী। সোমবার সকালে উপজেলার গোধড়া গ্রামে নাটোর-পাবনা মহাসড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত দুজন হলেন পাবনা জেলার চাটমোহর উপজেলার নড়াইখালী গ্রামের আব্দুল মান্নানের স্ত্রী জ্যোৎস্না বেগম (৫০) ও তাঁর মেয়ে রোজিনা খাতুন (৩০)। এ সময় আহত হন রোজিনা খাতুনের স্বামী বাসযাত্রী পাবনার মুলাডুলি গ্রামের শামীম হোসেন (৩৮), অপর বাসযাত্রী জুলহাস উদ্দিন (৩২) ও নজর আলী (৫৮)। আহত বাকিদের নাম প্রাথমিকভাবে জানা যায়নি।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন সংস্কার না করায় নাটোর-পাবনা মহাসড়কের বড়াইগ্রামের বনপাড়া-রাজাপুর অংশে অসংখ্য ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। একের পর এক গর্ত অতিক্রম করতে গিয়ে চালকের পক্ষে যানবাহনের নিয়ন্ত্রণ রক্ষা করা কঠিন হয়ে পড়ে। পাবনা থেকে রাজশাহীগামী চঞ্চল পরিবহনের একটি বাস গোধড়া এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাশের খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই বাসের দুই যাত্রীর মৃত্যু হয়। তাঁরা দুজন সম্পর্কে মা ও মেয়ে। এ সময় আহত হয়েছেন কমপক্ষে ১৫ বাসযাত্রী। সোমবার সকাল সাড়ে সাতটার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে বনপাড়া হাইওয়ে থানা-পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা সেখানে গিয়ে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে পৌঁছে দেন।

বনপাড়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার শফিকুল ইসলাম বলেন, দুর্ঘটনার পর আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আর মা–মেয়ের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে হাসপাতালের মর্গে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0