বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সকাল ৯টার দিকে শাসনগাছা বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা যায়, টার্মিনালে সারিবদ্ধভাবে বাসগুলো ঠায় দাঁড়িয়ে আছে। পরিবহনশ্রমিকের সংখ্যাও কম। সড়ক তিন চাকার বাহনের দখলে। একই অবস্থা নগরের জাঙ্গালিয়া বাস টার্মিনালে। সেখানেও সড়ক ফাঁকা। কোনো বাস চলছে না। সকাল ১০টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার পদুয়ার বাজার এলাকায় মহাসড়কও ফাঁকা দেখা যায়।

চকবাজার বাস টার্মিনালে কথা হয় নগরের সুজানগর এলাকার বাসিন্দা সাইফুর রহমানের সঙ্গে। তিনি বলেন, ফেনী যাবেন, কিন্তু বাস চলছে না। তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে সুয়াগাজী যাবেন। এরপর অন্য বাহন ধরবেন।

কুমিল্লা জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি কবির আহমেদ বলেছেন, গত বুধবার রাত ১২টা থেকে হঠাৎ করেই প্রতি লিটার ডিজেলের দাম ১৫ টাকা করে বাড়ানো হয়েছে। ৬৫ টাকা লিটারের ডিজেল বর্তমানে ৮০ টাকা। এতে বাস চালানো কষ্টসাধ্য। বর্তমানে বাসের টায়ার, যন্ত্রপাতি, উপকরণের দামও বেশি। করও দ্বিগুণ বাড়ানো হয়েছে। এই অবস্থায় সরকারকে বাসভাড়া বাড়াতে হবে। না হলে ডিজেলের দাম আগের অবস্থায় আনতে হবে।

কবির আহমেদ বলেন, তাঁদের দাবি মানলেই ধর্মঘট তুলে নেওয়া হবে। তা না হলে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট চলবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন