default-image

জমিজমাসংক্রান্ত বিরোধের জেরে সিলেটের ওসমানীনগরে আফরোজ আলী নামের এক কৃষককে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ছুরিকাঘাত করে হত্যার দায়ে মইনুদ্দিন ওরফে মঞ্জু নামের একজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালতে। আজ বৃহস্পতিবার সিলেটের অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ (প্রথম) আদালতের বিচারক রবিউল ইসলাম এই রায় দেন। একই সঙ্গে তাঁকে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডও দিয়েছেন আদালত।

অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ (প্রথম) আদালতের অতিরিক্ত সরকারি কৌঁসুলি (এপিপি) মাহফুজুর রহমান রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। দণ্ডপ্রাপ্ত মইনুদ্দিনের বাড়ি ওসমানীনগর থানার হুসন নমকী গ্রামে। তিনি মামলার একমাত্র আসামি ছিলেন।

তদন্ত শেষে মইনুদ্দিনকে অভিযুক্ত করে ২০১৪ সালের ২৭ জুন আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। ১৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত আজ রায় দেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ১১ মে ওসমানীনগরের খাসদিওর-মীরপাড়ার বাসিন্দা আফরোজ আলীকে সকালে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যান মইনুদ্দিন। জমিজমাসংক্রান্ত বিরোধ নিষ্পত্তি করতে দুজন কথা বলেন। কথা বলার একপর্যায়ে মইনুদ্দিন ধারালো অস্ত্র দিয়ে আফরোজ আলীর কোমর ও বুকে আঘাত করে হত্যা করেন। দূর থেকে ঘটনা দেখে আফরোজের পরিবারের সদস্য ও এলাকার কিছু লোক ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই মইনুদ্দিন পালিয়ে যান। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে রায়হান উদ্দিন বাদী হয়ে মইনুদ্দিনকে একমাত্র আসামি করে হত্যা মামলা করেন।

এ ঘটনায় তদন্ত শেষে মইনুদ্দিনকে অভিযুক্ত করে ২০১৪ সালের ২৭ জুন আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। ১৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত আজ রায় দেন। ছয় বছর পর রায় হলেও ন্যায়বিচার পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন মামলার বাদী রায়হান উদ্দিন। তিনি দ্রুত রায় কার্যকরের আশা করেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন