বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কাহালু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমবার হোসেন বলেন, খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে এক কিশোরের বাবা সোমবার রাত ১০টার দিকে কাহালু থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। রাতেই নন্দীগ্রাম সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আহম্মেদ রাজিউর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশ ওই কিশোরদের বাড়িতে গিয়ে তাদের অভিভাবক ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারে, নিজেদের জমানো টাকা নিয়ে তারা বাড়ি থেকে বের হয়েছে। পরে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে পুলিশ জানতে পারে, কক্সবাজারগামী এসআই পরিবহনের একটি বাসে উঠেছে তারা।

এরপর পুলিশ এসআই পরিবহনের সুপারভাইজারের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করে। তিনি জানান, কক্সবাজারগামী বাসটি রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানা অতিক্রম করছে। বিষয়টি তাৎক্ষণিক মোহাম্মদপুর থানার পুলিশকে জানালে তারা বাস থামিয়ে চার কিশোরকে উদ্ধার করে কাহালু থানা–পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

ওসি আমবার হোসেন বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে কিশোরেরা জানিয়েছে, তারা রোমাঞ্চকর ভ্রমণের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে পালিয়েছিল। পরে কক্সবাজারে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। মঙ্গলবার দুপুরে চার কিশোরকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন