বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিয়ে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে দেশব্যাপী কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে পটুয়াখালী জেলা বিএনপি সকাল থেকে গন–অনশন শুরু করে। কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া সদর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কাজী মাহবুব হোসেন বলেন, ‘দলের নেত্রীর সুচিকিৎসার দাবিতে আমরা সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে দলীয় কার্যালয়ে কর্মসূচির আয়োজন করেছি। সেখানেও সরকারের পালিত ছাত্রলীগের কর্মীরা হামলা চালায়। হামলাকারীরা হকিস্টিক ও লাঠিসোঁটা ব্যবহার করে আমাদের নেতা-কর্মীদের মারধর করে এবং পোস্টার-ব্যানার ছিঁড়ে চলে যায়।’

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিয়ে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে দেশব্যাপী কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে পটুয়াখালী জেলা বিএনপি সকাল থেকে গন–অনশন শুরু করে।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক স্নেহাংশু সরকার বলেন, কর্মসূচি শুরুর আগেই ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা মোটরসাইকেলে মহড়া দিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করেন এবং হামলা চালিয়ে অনুষ্ঠান পণ্ড করার চেষ্টা করেন। এ সময় হামলাকারীরা বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের পিটিয়ে আহত করেন। ব্যানার-পোস্টার ছিঁড়ে মোটরসাইকেলে মহড়া দিয়ে চলে যান। পরে আহত ব্যক্তিদের বিভিন্ন ক্লিনিক ও হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নান বলেন, আসলে জেলা বিএনপিতে একাধিক গ্রুপ ও তাদের মধ্যে দলীয় কোন্দল দীর্ঘদিনের। নিজেদের কোন্দলে এই হামলার দায় বিএনপি ছাত্রলীগের ওপর দিতে চাইছে। এ ঘটনায় ছাত্রলীগের কেউ জড়িত নয় বলে জানান তিনি।

পটুয়াখালী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। দলীয় কার্যালয়ে বিএনপি কর্মসূচি পালন করছে। হামলার ব্যাপারে কেউ কোনো অভিযোগ করেনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন