বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে কালীগঞ্জ উপজেলার বুড়িরহাট সীমান্তের কাছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে দুজন বাংলাদেশি নিহত হন। নিহত দুজন হলেন গোড়ল ইউনিয়নের মালগাড়া গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে ইদ্রিস আলী (৪০) ও একই গ্রামের আলতাফ হোসেনের ছেলে আসাদুজ্জামান ভাসানি (৪৫)। ঘটনার চার দিন পেরিয়ে গেলেও লাশ ফেরত দেওয়া হয়নি।

আজ সোমবার আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তব্য দেন নিহত ইদ্রিস আলীর ছোট ভাই একরামুল হক (৩৫) ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য এনামুল হক। তাঁরা বলেন, বিএসএফের গুলিতে নিহত ইদ্রিস আলী ও আসাদুজ্জামান ভাসানির মৃত্যু হয়েছে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে। চার দিন চলে গেল, লাশ ফেরত দেওয়া হয়নি।

একরামুল হক বলেন, ‘আমরা কি তাঁদের শেষ বিদায় জানাতে বা কবর দিতে পারব না? এটা কেমন বিচার হলো ওঁদের সঙ্গে।’

গোড়ল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদুল ইসলাম বলেন, ইদ্রিস আলী ও আসাদুজ্জামান ভারত থেকে গরু পার করার সময় বিএসএফের গুলিতে নিহত হন। লাশ ফেরত না পাওয়ায় এলাকার লোকজন ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারের সদস্যরা মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন