default-image

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে একটি বিকল ট্রাককে সচল করতে কয়েকজন মিলে ঠেলা দিচ্ছিলেন। ব্যর্থ হয়ে বিকল ট্রাকটিকে আরেকটি ট্রাক দিয়ে পেছন থেকে টেনে তুলতে গিয়ে দুই ট্রাকের মধ্যে পড়ে একজন প্রাণ হারিয়েছেন। তাঁর নাম মো. ইউনুস মিয়া (৫৬)। তিনি একজন কলার ব্যবসায়ী। আজ শনিবার ভোরে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ইউনুস মিয়া কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার সাহেদাগোপ গ্রামের মৃত শামসু মিয়ার ছেলে। পুলিশ দুটি ট্রাকই জব্দ করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কলা কিনতে শুক্রবার মধ্যরাতে একটি ট্রাকে করে ঝিনাইদহের উদ্দেশে রওনা করেছিলেন কুমিল্লার কলার ব্যবসায়ী ইউনুস মিয়াসহ (৫৬) কয়েকজন। পাটুরিয়া থেকে ফেরিতে নদী পাড়ি দিয়ে ভোর সাড়ে ৫টার দিকে দৌলতদিয়া পৌঁছানোর পর ৪ নম্বর ফেরিঘাট দিয়ে ট্রাকটি নেমে ওপরে সড়কে ওঠার সময় বিকল হয়ে সড়কের পাশে চলে যায়। ট্রাকে থাকা ইউনুস মিয়াসহ আরও চারজন মিলে নেমে পেছন থেকে ধাক্কা দিয়ে ট্রাকটি ওঠানোর চেষ্টা করেন। ব্যর্থ হওয়ায় অপেক্ষমাণ আরেকটি ট্রাকের সাহায্যে বিকল ট্রাকের পেছনে রশি দিয়ে বেঁধে টেনে তুলতে যান।

বিকল ট্রাকটিকে আরেকটি ট্রাক দিয়ে পেছন থেকে টেনে তুলতে গিয়ে দুই ট্রাকের মধ্যে পড়ে একজন প্রাণ হারিয়েছেন কলা ব্যবসায়ী মো. ইউনুস মিয়া (৫৬)।

এ সময় ট্রাকের পেছনে থাকা সবাই দ্রুত সরে গেলেও ইউনুস মিয়া সরতে না পারায় সজোরে ধাক্কা লাগলে দুই ট্রাকের মধ্যে পড়ে মাথা থেঁতলে গুরুতর আহত হন। স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন।

বিজ্ঞাপন

নিহত ব্যবসায়ী ইউনুস মিয়ার ছেলে ঢাকা রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে কর্মরত কনস্টেবল ফয়সাল আহম্মেদ ঘটনা বর্ণনা করে প্রথম আলোকে বলেন, তিনি কর্তব্যরত অবস্থায় দুর্ঘটনার খবর পেয়ে সকালে আরেকজনের কাছে ডিউটি বুঝিয়ে দিয়ে গোয়ালন্দে চলে আসেন।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল তায়াবীর বলেন, খবর পেয়ে ফেরিঘাট থেকে পুলিশ ট্রাক দুটিকে আটক করেছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন