default-image

কক্সবাজারের আদালতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) করা ১০০ কোটি টাকার মানহানি মামলায় জামিন পেয়েছেন বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্লাস্টের কর্মী ফারজানা আক্তার (২৬)। আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কক্সবাজারের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম তামান্না ফারাহর আদালতে হাজির হয়ে তিনি জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক তাঁর জামিন মঞ্জুর করেন।

আদালত সূত্র জানায়, ২০২০ সালের ৮ অক্টোবর টেকনাফ বিজিবি-২-এর আওতাধীন দমদমিয়া চেকপোস্টে অন্যদের সঙ্গে অটোরিকশার যাত্রী ব্লাস্টের নারী কর্মীকেও তল্লাশি করেন বিজিবির সদস্যরা। ওই নারী পরে বিজিবি সদস্যদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেন। তাঁর বক্তব্যের ওপর ভিত্তি করে কয়েকটি গণমাধ্যম প্রতিবেদন করে। ঘটনাটি মিথ্যা দাবি করে গত ১০ নভেম্বর কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ওই নারীর বিরুদ্ধে ১০০ কোটি টাকার মানহানি মামলা করে বিজিবি। টেকনাফের দমদমিয়া চেকপোস্টের বিজিবি সুবেদার মোহাম্মদ আলী মোল্লা ওই মামলার বাদী।

বিজ্ঞাপন

মামলাটি আমলে নেওয়ার পর আদালত সাত কার্যদিবসের মধ্যে সাক্ষীদের জবানবন্দি নিয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) নির্দেশ দেন। সেই নির্দেশনায় মামলাটি তদন্ত করেন টেকনাফ থানার ওসি (অপারেশন) শরিফুল ইসলাম। তিনি ২০২০ সালের ২২ নভেম্বর আদালতে প্রতিবেদন জমা দেন। এরপর ফারজানা আক্তারের বিরুদ্ধে সমন জারি করেন আদালত।

আজ দুপুরে ফারজানার আইনজীবী আবদুর শুক্কুর সাংবাদিকদের বলেন, আদালত বিষয়টি আমলে নিয়ে জামিন মঞ্জুর করেছেন। তিনি আশা করেন, তাঁর মক্কেল নির্দোষ প্রমাণিত হবেন।

আদালত প্রাঙ্গণে বিজিবির আইনজীবী সাজ্জাদুল করিম বলেন, একটি বাহিনীর বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ মানহানিকর। তাই শত কোটি টাকার মানহানি মামলা করা হয়েছে। মামলায় ওই নারী জামিন পেলেন বলে যে বিচার শেষ, তা নয়।

মন্তব্য করুন